• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পুলিশ পরিচয়ে বাড়িতে ঢুকে কড়েয়ায় লুঠপাট

Kareya PS
ফাইল চিত্র।

পুলিশ পরিচয় দিয়ে বাড়ি ঢুকে ডাকাতি! শুধু তাই নয়, বাড়ি থেকে একজনকে তুলে নিয়ে গিয়ে তাঁকে অস্ত্র দেখিয়ে এটিএম থেকে টাকাও তোলালো দুষ্কৃতীরা। ঘটনাটি ঘটেছে কড়েয়া থানা এলাকার ব্রাইট স্ট্রিটে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বুধবার সকালে বি-৫০ ব্রাইট স্ট্রিটের বাসিন্দা মহম্মদ ইরশাদ ওরফে সামির কড়েয়া থানায় অভিযোগ জানান। তদন্তকারীদের সূত্রে জানা গিয়েছে, ভোর ৩টে নাগাদ পাঁচ-ছ’জন ওই বাড়িতে যায়। তিন তলায় ইরশাদের ফ্ল্যাট। ওই দুষ্কৃতীরা নিজেদের পুলিশ পরিচয় দেয়। যদিও কারওর পরনে পুলিশের পোশাক ছিল না বলে জানা গিয়েছে।

তদন্তকারীদের সূত্রে খবর, ইরশাদ পুলিশকে জানিয়েছেন, ওই যুবকরা তাঁর ফ্ল্যাটে ঢুকেই জানায় তাঁরা তল্লাশি করবে। অভিযোগ, পুলিশ পরিচয়ে ঢোকা যুবকদের হাতে আগ্নেয়াস্ত্র ছিল। তাঁরা তল্লাশির নামে ইরশাদ এবং তাঁর পরিবারের সবার মোবাইল কেড়ে নেয়। তার পর ইরশাদকে থানায় জেরা করতে নিয়ে যাওয়ার অছিলায় বাইরে নিয়ে যায়। সেখান থেকে কিছুটা দূরে একটি এটিএমে নিয়ে যায় ইরশাদকে। অভিযোগ, ইরশাদকে বাধ্য করা হয় ১০ হাজার টাকা এটিএম থেকে তুলতে। সেই টাকা নিয়ে দুষ্কৃতীরা চম্পট দেয়।

আরও পড়ুন: কন্টেনমেন্ট জোনে লকডাউন থাকবে ৭দিন, বললেন মুখ্যমন্ত্রী

আরও পড়ুন: করোনা উদ্বেগে পুলিশ-পুরসভা বৈঠক, কনটেনমেন্ট জোনের সংখ্যা ৫০ ছাড়াতে পারে​

পেশায় হোম অ্যাপ্লায়েন্সের মেকানিক ইরশাদের অভিযোগের ভিত্তিতে প্রাথমিক তদন্তের পর তোফাজ্জুল ইসলাম ওরফে ভুট্টো নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অভিযুক্তের বাড়ি কড়েয়ার মসজিদবাড়ি লেনে। কিন্তু ইরশাদের বয়ান ঘিরে কিছু বিভ্রান্তি রয়েছে বলে মনে করছেন তদন্তকারীদের একাংশ। এক তদন্তকারীর প্রশ্ন,‘যদি টাকাই মোটিভ হত, তা হলে মাত্র ১০ হাজার টাকা তুলিয়ে কেন ছেড়ে দেওয়া হল ইরশাদকে?” পুলিশ ওই এটিএম এবং রাস্তার সিসি ক্যামেরার ফুটেজ পরীক্ষা করে দেখছে। তদন্তকারীরা খতিয়ে দেখছেন দুষ্কৃতীদের সঙ্গে অভিযোগকারীর টাকা পয়সার লেনদেন নিয়ে পুরনো কোনও গণ্ডগোল ছিল কি না? এক তদন্তকারী আধিকারিক বলেন, ‘‘ধৃতকে আদালতে তোলা হয়েছে। আমরা হেফাজতে নিয়ে জেরা করব বাকি দুষ্কৃতীদের বিষয়ে।” 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন