• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পেঁপেতে লুকোনো গাঁজা, বন্দি ছেলেকে দিয়ে ধৃত মা

Cannabis
গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

জেলবন্দি ছেলে। সেখানেই তার কাছে গাঁজা পৌঁছে দিতে গিয়ে ধরা পড়লেন মা। ঘটনাস্থল প্রেসিডেন্সি কেন্দ্রীয় সংশোধনাগার। 

নিয়ম অনুযায়ী, নির্দিষ্ট দিনে বন্দিদের সঙ্গে দেখা করে খাবার পৌঁছে দিতে পারেন তাঁর পরিজনেরা। তেমনই বুধবার দুপুর একটা নাগাদ ছেলে মহম্মদ বাবু বিসলেরির সঙ্গে দেখা করে খাবার দিতে গিয়েছিলেন তপসিয়ার বাসিন্দা বছর পঞ্চাশের সাইদা বেগম ওরফে সাজেদা বিবি। 

সংশোধনাগার সূত্রের খবর, অন্য খাবারের সঙ্গে তিনটি পাকা পেঁপেও ছিল সাইদার কাছে। কাগজে মোড়া পেঁপের মধ্যে আচমকা কিছু নড়ার শব্দ পান কারারক্ষীরা। এর পরেই পেঁপেগুলি স্ক্যানারে দেওয়া হয়। দেখা যায়, ভিতরে শক্ত কোনও জিনিস রয়েছে। তখনই সাইদার দেওয়া পেঁপে কাটার সিদ্ধান্ত নেন সংশোধনাগার কর্তৃপক্ষ। পেট চিরতেই দেখা যায়, ভিতরে রয়েছে পলিথিনে মোড়া গাঁজা। তিনটি পেঁপে থেকে সব মিলিয়ে প্রায় ৫০০ গ্রাম গাঁজা মিলেছে বলে কারা দফতর সূত্রের খবর। সঙ্গে সঙ্গেই আটক করা হয় সাইদাকে। খবর যায় হেস্টিংস থানায়। সংশোধনাগার কর্তৃপক্ষের অভিযোগের ভিত্তিতে সাইদাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, হাতে নিয়ে এক ঝলকে বোঝাই যাবে না যে পেঁপেগুলি আগে কাটা হয়েছিল। নিপুণ ভাবে পেঁপের পেট কেটে বীজগুলি বার করে নেওয়ার পরে সেই জায়গায় পলিথিনে মোড়া গাঁজার প্যাকেট ভরা হয়েছে। এর পরে আঠা দিয়ে 

পেঁপের দু’টি ভাগ নিখুঁত করে মিলিয়েও দেওয়া হয়েছে। সূত্রের খবর, জেলের ভিতরেই কার্যত গাঁজার ব্যবসা ফেঁদেছিলেন বিচারাধীন ওই বন্দি। সে কারণেই বাবুকে গাঁজা সরবরাহ 

করতে এই পদ্ধতিতে পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন তপসিয়ার বাসিন্দা সাইদা। এই ঘটনায় সাইদার বিরুদ্ধে মাদক পাচার মামলায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন