• নীলোৎপল বিশ্বাস
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নজর ক্যামেরার অভাবে অরক্ষিত সোনারপুর

Sonarpur
—ফাইল চিত্র।

স্টেশন জুড়ে হুলস্থুল চলছে। এক মহিলা আর কয়েক জন পুলিশকর্মী ছুটে বেড়াচ্ছেন এক প্ল্যাটফর্ম থেকে অন্যটিতে। ঘটনা হল, মহিলার টিকিট দেখতে চেয়েছিলেন এক স্টেশনকর্মী। সেই ফাঁকেই মায়ের হাত ছাড়িয়ে কোথাও চলে গিয়েছে তাঁর শিশুকন্যা। মহিলা কাঁদতে কাঁদতে বলছেন, ‘‘আপনাদের টিকিট দেখা আগে? আমার বাচ্চাটা কোথায় চলে গেল, কেউ দেখলেন না? স্টেশনে কি কোনও সিসি ক্যামেরাও নেই!’’

ঘণ্টাখানেক পরে স্টেশনের বাইরের একটি দোকান থেকে পাওয়া গিয়েছিল ওই শিশুটিকে। ওই ঘটনা নতুন করে প্রশ্ন তুলে দিয়েছে, সোনারপুরের মতো পূর্ব রেলের একটি গুরুত্বপূর্ণ স্টেশনে সিসি ক্যামেরা কেন থাকবে না তা নিয়ে। সম্প্রতি একই প্রশ্ন তুলেছে কলকাতা পুলিশও। পঞ্চসায়র থানার একটি গণধর্ষণের অভিযোগের তদন্তে নেমে তাদেরও হোঁচট খেতে হচ্ছে সোনারপুর স্টেশন থেকে কোনও সিসি ক্যামেরার ফুটেজ না মেলায়।

লালবাজারের গোয়েন্দা বিভাগের এক শীর্ষ কর্তা জানান, গত ১১ নভেম্বর পঞ্চসায়রের একটি হোম থেকে বেরিয়ে গণধর্ষিতা হয়েছেন বলে অভিযোগ করেন মানসিক সমস্যায় ভোগা মৃগী রোগিণী এক মহিলা। ঘটনার রাতে একটি সাদা ট্যাক্সির চালক ইএম বাইপাস থেকে মহিলাকে গাড়িতে তুলে নরেন্দ্রপুর থানা এলাকার কাঠিপোতা নামে একটি জায়গায় নিয়ে যায়। সেখান থেকে মহিলাকে উদ্ধার করে নরেন্দ্রপুর থানা। পরে মহিলাকে সোনারপুরের একটি ভবঘুরেদের সরকারি হোমে রাখে পুলিশ। তবে সেখান থেকেও কাউকে কিছু না জানিয়েই মহিলা বেরিয়ে পড়েন বলে তদন্তে উঠে আসে। সোনারপুর স্টেশন থেকে বালিগঞ্জের ট্রেন ধরে তিনি 

তাঁর এক আত্মীয়ের বাড়িতে যান বলে মহিলার পরিবারের দাবি। তবে 

মহিলা কী করে ওই স্টেশনে এলেন, কে-ই বা তাঁকে টিকিট কেটে দিয়েছিলেন সেই সব প্রশ্নের উত্তর পায়নি পুলিশ। যদিও সোনারপুরের ওই হোম থেকে সোনারপুর স্টেশনের দূরত্ব অনেকটা।

লালবাজারের ওই কর্তার কথায়, ‘‘তদন্তে নেমে সোনারপুর স্টেশনের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ চাইলেও আমরা তা হাতে পাইনি। ফুটেজ পেলে তদন্ত অনেকটাই পরিষ্কার হত। মহিলা নিজেই বেরিয়ে এসেছিলেন না কি সোনারপুরের হোমের কেউ তাঁকে স্টেশনে পৌঁছে দেয় তা-ও জানা যেত।’’ ওই রেল স্টেশন সূত্রে জানানো হয়েছে, সেখানে কোনও সিসি ক্যামেরাই নেই।

যদিও মুম্বই হামলার সময়ে ছত্রপতি শিবাজী টার্মিনাসের কথা মাথায় রেখে দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্টেশনে সিসি ক্যামেরা লাগানোর প্রস্তাব আগেই নেওয়া হয়েছিল। হাওড়া, কলকাতা, শিয়ালদহ স্টেশনে ক্যামেরা লাগানো হলেও পূর্ব রেলের গুরুত্বপূর্ণ স্টেশন সোনারপুরে তা এখনও হয়নি কেন? শিয়ালদহ রেল পুলিশের সুপার অশেষ বিশ্বাস বলেন, ‘‘স্টেশনে সিসি ক্যামেরা নেই কেন সেটা রেল কর্তৃপক্ষ বলতে পারবেন। তবে ওই স্টেশনের থানার কয়েকটি ক্যামেরা রয়েছে। সেগুলির মুখ লকআপ আর সেরেস্তার দিকে ঘোরানো থাকে। তা দিয়ে স্টেশনের কাজ হয় না।’’

পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক নিখিল চক্রবর্তী অবশ্য বলেন, ‘‘সোনারপুর-সহ শিয়ালদহ ডিভিশনের বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ স্টেশনে সিসি ক্যামেরা লাগানোর প্রস্তাব হয়ে গিয়েছে। দ্রুত কাজ শুরু হয়ে যাবে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন