শিশুর চিকিৎসায় বিরল গ্রুপের (বম্বে গ্রুপ) রক্তের প্রয়োজন মেটাতে দরকার ছিল একটি সইয়ের। তার জন্য শিশুর পরিবারকে আড়াই ঘণ্টা অপেক্ষা করানোর অভিযোগ ওঠে ব্লাড ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার সেই অভিযোগের সত্যতা খতিয়ে দেখতে দুই সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করলেন নীলরতন সরকার মেডিক্যাল কলেজ কর্তৃপক্ষ। আজ, বুধবার ওই কমিটি গঠন নিয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি হওয়ার কথা। ওই কমিটিকে সাত দিনের মধ্যে রিপোর্ট জমা করতে হবে বলে জানান হাসপাতালের সুপার সৌরভ চট্টোপাধ্যায়।

মাত্র কুড়ি দিনের শিশু মহম্মদ সুভানের মৃত্যু হয়েছিল শনিবার। তার বাবা মহম্মদ সফিকুল জানিয়েছিলেন, বম্বে গ্রুপের এক দাতা রক্ত দেবেন বলে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে অপেক্ষা করছিলেন। তাঁর রক্ত থেকে সংগৃহীত উপাদান এনআরএসে পাঠাতে রিকুইজিশন স্লিপে ব্লাড ব্যাঙ্কের কর্তব্যরত চিকিৎসকের সই দরকার ছিল। কিন্তু সে জন্য আড়াই ঘণ্টা পরে আসতে বলা হয় পরিবারকে। ঘটনাচক্রে, তার মধ্যে মারা যায় শিশুটি।

মঙ্গলবার সুপার সৌরভ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘‘দুই সদস্যের কমিটিতে অপথ্যালমোলজি বিভাগের প্রধান সমীর বন্দ্যোপাধ্যায় এবং ডেপুটি সুপার দ্বৈপায়ন বিশ্বাস আছেন।’’ মৃত শিশুর মা নার্গিস বিবির বাবা বাবু আলি বলেন, ‘‘অন্য হাসপাতালের আধিকারিকদের নিয়ে কমিটি কেন গঠন করা হল না?’’ এতে অভিযুক্তদের আড়ালের চেষ্টা হতে পারে বলে দাবি করেন তিনি। স্বাস্থ্য ভবনের এক আধিকারিক বলেন, ‘‘ব্লাড ব্যাঙ্কের দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসকই শেষ পর্যন্ত রিকুইজিশন স্লিপের কাগজে সই করেছেন। তা হলে উনি আগে কেন সই করলেন না, এই প্রশ্ন আমাদেরও রয়েছে।’’

দিল্লি দখলের লড়াইলোকসভা নির্বাচন ২০১৯