সাপের কারণে ইলিয়ট পার্কে হাঁটা বন্ধ রেখেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সে কথা গত সপ্তাহেই বন দফতরকে জানিয়েছিল কলকাতা পুরসভা। সেই চিঠি পাওয়ার পর পরই ইলিয়ট পার্ক ঘুরে দেখে গেল বন দফতরের বন্যপ্রাণ শাখার একটি প্রতিনিধিদল। মালিদের থেকে পার্কের সাপ সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করেছেন তাঁরা। 

প্রসঙ্গত, ইলিয়ট পার্কের ভিতরে থাকা একাধিক জলাশয়ই সাপের আশ্রয়স্থল বলে প্রাথমিক ভাবে আন্দাজ করছে বন্যপ্রাণ শাখার ওই প্রতিনিধিদল। মুখ্যমন্ত্রীও পুকুরে সাপ দেখার কথা বলেছিলেন। বন্যপ্রাণ শাখার এক আধিকারিক বলেন, ‘‘যাঁরা ওই পার্কে দীর্ঘ দিন ধরে কাজ করছেন, তাঁদের সঙ্গে কথা বলেছি। তাঁদের থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী সাপের সম্ভাব্য আশ্রয়স্থল খোঁজার চেষ্টা চলছে।’’ 

গত ১ জুলাই সাপের কামড়ের চিকিৎসা নিয়ে স্বাস্থ্য দফতরের পরিকল্পনার কথা বলছিলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা স্বাস্থ্যমন্ত্রী মমতা। তখনই গল্পচ্ছলে মুখ্যমন্ত্রী জানান যে, আগে তিনি ইলিয়ট পার্কে হাঁটতে যেতেন। কিন্তু এখন যান না, বিশেষত গরমকালে বা বর্ষায়। কারণ এক দিন হাঁটতে গিয়ে তিনি তিনটে সাপকে ফণা তুলে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখেন! এর পরেই তড়িঘড়ি বন দফতরকে চিঠি লেখে পুরসভা। প্রাথমিক তথ্য সংগ্রহের পরে বন্য প্রাণ শাখার কর্মীরা ফের সাপ ধরতে পার্কে আসবেন বলে সূত্রের খবর।