বন্ধুকে খুনের অভিযোগে এক যুবককে গ্রেফতার করল পুলিশ। সোমবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ শহরতলির মহেশতলা থানার বাটানগর এলাকার পঞ্চাননতলায়। ধৃতের নাম সমর ভাদুক।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, পার্থ মজুমদার (৩২) নামে ওই এলাকার বাসিন্দা স্থানীয় একটি দোকান থেকে ধূপকাঠি কিনেছিলেন। কিন্তু ওই ধূপকাঠি ঠিক মতো জ্বলছিল না বলে পাড়ার দোকানে এসে অভিযোগ করছিলেন তিনি। এমনকি, ওই দোকানদারকে গালিগালাজ করেছিলেন বলেও পার্থের বিরুদ্ধে অভিযোগ। সে সময়ে ওই দোকানেই বসেছিল এলাকার বাসিন্দা তথা পার্থের বন্ধু সমর। দোকানদারকে গালিগালাজ করায় পার্থকে পাল্টা গালিগালাজ করে সমর। তাতে দু’জনের মধ্যে বচসাও হয়। পরে পার্থ বাড়ি ফিরে যান।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, রাতে ফের পার্থ বাড়ি থেকে বেরিয়ে ওই দোকানের কাছে আসেন। সমর সেখানেই ছিল। বিকেলের ওই বচসার জেরে সমর রাস্তার পাশে পড়ে থাকা একটি কাঠ দিয়ে পার্থের মাথায় মারে বলে অভিযোগ। ওই কাঠের গায়ে পেরেক ছিল। পার্থের মাথা ও শরীরের একাধিক জায়গায় পেরেক ফুটে যায়। ক্ষতবিক্ষত অবস্থায় মাটিতে পড়ে যান পার্থ। গুরুতর জখম অবস্থায় রাতেই পার্থকে এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যায় পুলিশ। মঙ্গলবার সকালে পার্থ সেখানে মারা যান বলে হাসপাতাল সূত্রের খবর। 

পুলিশ জানায়, পার্থের শরীরে একাধিক জায়গায় গভীর ক্ষত ছিল। প্রচুর পরিমাণে রক্তক্ষরণের কারণে পার্থের মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিক তদন্তের ভিত্তিতে জানিয়েছে পুলিশ। ঘটনার পরেই পার্থের বাবা পরিমল মজুমদারের অভিযোগের ভিত্তিতে সমরকে খুনের অভিযোগে গ্রেফতার করে পুলিশ। পার্থ একটি জুতো সংস্থায় কাজ করতেন।