সোশ্যাল মিডিয়ায় ফের মিম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে। এ বার সেখানে তিনি ভারতীয় জনতা পার্টির সদস্য! বিজেপির নাম ও প্রতীক সমেত সেই কার্ডে কোথাও মুখ্যমন্ত্রী সহাস্য। কোথাও আবার তিনি ধরে আছেন বিজেপির দলীয় পতাকা। তাঁর ছবির সঙ্গে রয়েছে সদস্যপদের ক্রমিক সংখ্যাও । গত কয়েক দিন ফেসবুক আর হোয়াটসঅ্যাপে ঘুরছে এই ছবি। এই ঘটনায় ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। মঙ্গলবার বিধানসভায় সাংবাদিক বৈঠকে এই রসিকতার তীব্র নিন্দা করেছেন শিক্ষামন্ত্রী।

আরও পড়ুন: নিউ টাউনে ফিরুক বসু-নাম, সরব বাম

আরও পড়ুন: কলকাতার বুকে ভয়ঙ্কর কাণ্ড! বন্দুক দেখিয়ে ধর্ষণ নবম শ্রেণির ছাত্রীকে, গ্রেফতার গৃহশিক্ষক

গত ৬ জুলাই থেকে বিজেপির সদস্যপদের পুনর্নবীকরণ করা হচ্ছে। পাশাপাশি, নতুন সদস্যদের নবীকরণও জারি। অনেকেই নিজের সদস্যপদের ছবি পোস্ট করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। এর পর নেট দুনিয়ায় মিম আসতে সময় লাগেনি। অবিকল বিজেপি-র সদস্যপদের ছবি। শুধু আসল সদস্যের ছবির জায়গায় বসানো হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর মুখ। আর নকল ক্রমিক নম্বর। শিক্ষামন্ত্রীর অভিযোগ, জনসাধারণকে বিভ্রান্ত করতে বেনামী প্রোফাইল থেকে এই ধরনের মিম তৈরি করে ছড়ানো হচ্ছে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশাপাশি মিম-এ দেখা গিয়েছে রাহুল গাঁধীর মুখও। মিম-এ তিনিও বিজেপি সদস্য। তাঁর ছবিতে আবার ক্রমিক সংখ্যা ৪২০! মমতা এবং রাহুল, দু’জনের ছবি সমেত মিম-ই ইতিমধ্যে ভাইরাল। পার্থবাবু জানিয়েছেন, প্রযুক্তির অপব্যবহার করে এই ধরনের ধৃষ্টতা সহ্য করা হবে না। অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ করা হবে।