সচেতনতার প্রচার কিংবা কড়া পদক্ষেপ সত্ত্বেও যে চালকদের একাংশের হুঁশ ফিরছে না, ফের তার প্রমাণ মিলল নিউ টাউনের একটি পথ দুর্ঘটনায়। শনিবার রাতে নিউ টাউনের একটি ব্লকের ভিতরের রাস্তায় যাত্রিবাহী একটি বড় গাড়ির ধাক্কায় আহত হন তিন মহিলা-সহ চার জন। এঁদের মধ্যে এক জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। গাড়িটিকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, রাত সাড়ে আটটা নাগাদ নিউ টাউনের একটি শপিং মলের কাছে সিই ব্লকের ভিতর দিয়ে যাচ্ছিল যাত্রিবাহী ওই বড় গাড়িটি। আচমকা নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে চার জন পথচারীকে ধাক্কা মারার পরে দাঁড়িয়ে থাকা গাড়িতে ধাক্কা মারে সেটি। তার পরে গাড়িটি সিই/১/এ/১৪০ নম্বর বাড়ির পাঁচিলে ধাক্কা মেরে কিছুটা ভিতরে ঢুকে যায়।

বিকট শব্দ শুনে বিভিন্ন বাড়ি থেকে বাসিন্দারা বাইরে বেরিয়ে আসেন। যে বাড়িতে গাড়িটি ধাক্কা মারে, আতঙ্কে বেরিয়ে পড়েন সেখানকার বাসিন্দারাও। বাড়িটির পাঁচিলের একটি অংশ পুরোপুরি ভেঙে গিয়েছে। ওই বাসিন্দারা বেরিয়ে দেখেন, যাত্রিবাহী গাড়িটি বাড়ির দেওয়ালের সামনে দাঁড়িয়ে। স্থানীয় লোকজন আহত চার জনকে উদ্ধার করে স্থানীয় এক বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যান। পুলিশ সূত্রের খবর, এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাময়িক ভাবে উত্তেজনা ছড়ায়। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। যে গাড়িটিকে ওই যাত্রিবাহী গাড়ি ধাক্কা মারে, সেটিও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশের অভিযোগ, ওই গাড়িটি বেপরোয়া গতিতে যাচ্ছিল। ব্লকের ভিতরে এমন গতিতে গেলে যে কোনও সময়ে দুর্ঘটনার আশঙ্কা থাকে। পুলিশ সূত্রের খবর, গাড়িচালকের গাফিলতি কতটা ছিল, তিনি কী অবস্থায় ছিলেন, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পাশাপাশি, গাড়ির স্টিয়ারিং কেটে যাওয়ার মতো কোনও যান্ত্রিক ত্রুটি হয়েছিল কি না, তা-ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। 

গত কয়েক দিনে পরপর দুর্ঘটনা ঘটেছে বিধাননগর কমিশনারেট এলাকায়। ভিআইপি রোডের জোড়া মন্দির, তেঘরিয়া বা নিউ টাউনের বড় রাস্তায় দুর্ঘটনার পরে সল্টলেকের নাওভাঙার ভিতরের রাস্তায় এবং এ দিন নিউ টাউনের ব্লকের ভিতরের রাস্তাতেও দুর্ঘটনা ঘটল।