হকার ও আনাজ বিক্রেতাদের কারণে রাস্তা অপ্রশস্ত হয়ে পড়ছে। ফলে যানজটের সমস্যাও নিত্য দিনের। অভিযোগ, এ সবের জেরেই প্রাণ গেল এক রোগীর। ঘটনাকে ঘিরে স্থানীয় বাসিন্দারা রাস্তা অবরোধ করেন। বৃহস্পতিবার ওই ঘটনা ঘটেছে কৈখালি-রাজারহাট রোডে নারায়ণপুর বটতলা বাজারের কাছে।

পুলিশ জানায়, স্থানীয় পশ্চিম বেড়াবেড়ির বাসিন্দা মহম্মদ ফিরোজ শেখ নামে এক ব্যক্তি এ দিন জলে ডুবে যান। তাঁকে উদ্ধার করে অ্যাম্বুল্যান্সে চাপিয়ে দ্রুত হাসপাতাল নিয়ে যেতে চেয়েছিলেন পরিবারের লোকজন। অভিযোগ, কৈখালি রাজারহাট রোড ধরে যাওয়ার পথে নারায়ণপুর-বটতলা বাজারের কাছে রাস্তায় যানজটে ফিরোজের অ্যাম্বুল্যান্স আটকে যায়। রাস্তার দু’ধারে আনাজ বিক্রেতা ও হকার বসার কারণেই ওই যানজট বলে জানায় পুলিশ। যানজটে আটকে পড়ে গাড়ির মধ্যেই মারা যান ওই রোগী। এর পরেই ঘটনাস্থলে উত্তেজনা ছড়ায়। ঘিঞ্জি রাস্তার কারণেই গাড়ি আটকে ওই রোগীর মৃত্যু হয়েছে— এই অভিযোগে স্থানীয় লোকজন রাস্তা অবরোধ করেন। অবরোধকারীরা এবং স্থানীয় লোকজন এর পরে ওই রাস্তা দখল করে বসা ব্যবসায়ীদের সেখান থেকে সরিয়ে দেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অবরোধকারীদের সঙ্গে কথা বলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে।

পুলিশের আধিকারিকেরা রাস্তা দখলমুক্ত করার ব্যাপারে পদক্ষেপ করার আশ্বাস দেওয়ার পরে অবরোধ উঠে যায়। তবে রাস্তা হকারমুক্ত করার পদক্ষেপের লিখিত আর্জি নারায়ণপুর থানায় জমা করেন স্থানীয় লোকজন। বিধাননগর পুরসভা জানিয়েছে, ওই এলাকায় অতীতে হকার সরানো হলেও ফের তাঁরা বসে পড়েন। ডেপুটি মেয়র তথা স্থানীয় ৩ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর তাপস চট্টোপাধ্যায় জানান, পুর কমিশনারের সঙ্গে কথা হয়েছে। যান চলাচল স্বাভাবিক রাখতে উচ্ছেদ অভিযান করা হবে।