• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

রোগীর মৃত্যুতে বেসরকারি হাসপাতালে ভাঙচুর

Death
প্রতীকী ছবি।

রোগীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ভাঙচুর হল চিনার পার্কের একটি বেসরকারি হাসপাতাল। ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়ায় স্থানীয় এলাকায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় ইকো পার্ক থানার পুলিশ। চিকিৎসায় গাফিলতি হয়েছে দাবি করে ওই হাসপাতালের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ জানায় রোগীর পরিবার।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে হাজি শাহাদাত মণ্ডল(৬২) নামে এক প্রৌঢ়কে বুকে ব্যথা নিয়ে ওই বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করেন তাঁর পরিজনেরা। শুক্রবার সকালে তাঁর মৃত্যু হয়। ওই ঘটনার পরেই রোগীর পরিবারের লোকজন হাসপাতালে পৌঁছন। তদন্তকারীদের দাবি, ভুল চিকিৎসায় প্রৌঢ়ের মৃত্যু হয়েছে বলে মৃতের আত্মীয়েরা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করেন। কর্তৃপক্ষ অবশ্য সেই অভিযোগ উড়িয়ে দেন। তাই নিয়েই দু’পক্ষের মধ্যে বচসা শুরু হয়ে যায়। যা শেষ পর্যন্ত মারধর ও ভাঙচুরের দিকে গড়ায়। তাই নিয়ে শুরু হয় বচসা। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বচসা চলাকালীন সময়েই হাসপাতালে রোগীর পরিবারের আরও লোকজন চলে আসেন। তুমুল উত্তেজনা তৈরি হয়। অভিযোগ, হাসপাতালের রিসেপশনে চড়াও হন রোগীর পরিবারের লোকজন। কাচ ভাঙচুর করা হয়। হাসপাতালের কর্মী-চিকিৎসকেরা বাধা দিতে গেলে তাঁরাও আক্রান্ত হন। পরিস্থিতি দেখে হাসপাতালের লোকজন অন্যত্রও সরে যান। বেশ কিছুক্ষণ এমন অবস্থা চলতে থাকায়, অন্য রোগীর পরিজনেরা অসহায় অবস্থায় পড়েন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়।

আরও পড়ুন: বায়ুদূষণ কমাতে করণীয় কী, পরামর্শ বিশেষজ্ঞের

মৃতের এক আত্নীয় মহম্মদ হাবিব মণ্ডলের অভিযোগ, শাহদাতের বুকে ব্যথা হচ্ছিল। বলা হয়েছিল রাতে তাঁর শরীর ঠিক ছিল। সকালে হাসপাতাল জানায় হাজি শাহাদাত মারা গিয়েছেন। সময়ে চিকিৎসা না হওয়ায় শাহদাতের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ করেন হাবিব। ঘটনা প্রসঙ্গে হাসপাতালের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন