সোনারপুর ও সুভাষগ্রাম স্টেশনের মধ্যে চণ্ডীপুর লেভেল ক্রসিংয়ের কাছে রেললাইন থেকে উদ্ধার হয়েছিল দ্বাদশ শ্রেণির এক ছাত্রীর দেহ। ঘটনাটি ঘটেছিল গত ১৩ জুলাই। সোনারপুর রেলপুলিশ দেহটি উদ্ধার করে ময়না-তদন্তে পাঠায়। রুবাইয়া পরভিন নামে ওই ছাত্রীর দেহ উদ্ধারের পরে তার বাবা সোনারপুর রেলপুলিশে অভিযোগ করেছিলেন, মেয়েকে গণধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে। সেই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করল পারুলিয়া কোস্টাল থানার পুলিশ। ধৃতের নাম রোমি মণ্ডল।

পুলিশ জানিয়েছে, মঙ্গলবার ভোরে ডায়মন্ড হারবারের নুরপুর থেকে রোমিকে গ্রেফতার করা হয়। এ দিনই সোনারপুর রেলপুলিশের তরফে অভিযুক্তকে শিয়ালদহ আদালতে তোলা হলে সাত দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। প্রসঙ্গত, ওই ঘটনার পরে ডায়মন্ড হারবারে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ হয়েছিল। দফায় দফায় পথ অবরোধও করেছিলেন স্থানীয় বাসিন্দারা।