• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

যুবকের নগ্ন ছবি তুলে ব্ল্যাকমেল! নয়া অ্যাপ চক্রে কপালে ভাঁজ পুলিশের

graphic
গ্রাফিক- তিয়াসা দাস

মহিলাদের সঙ্গে বন্ধুত্ব করিয়ে দেওয়ার টোপ দিয়ে প্রতারণা বা ব্ল্যাকমেল করার ঘটনা আকছার ঘটে শহরে। কিন্তু, এবার এক যুবকের নগ্ন ছবি তুলে ব্ল্যাকমেলের ঘটনা ঘটল। অভিযুক্ত গ্রেফতার হলেও পুলিশের চিন্তা বাড়িয়েছে অপরাধের এই নয়া ট্রেন্ড।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ৭ অগস্ট বিরাটির যুবক সুমন কুণ্ডু (নাম পরিবর্তিত) গড়িয়াহাট থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। সেখানে তিনি জানান, মহম্মদ গোলাম নামে এক যুবক তাঁর ডেবিট কার্ড কেড়ে নিয়ে, জোর করে কার্ডের পিন জেনে অ্যাকাউন্ট থেকে ৩০ হাজার টাকা তুলে নিয়েছেন।সুমনের সঙ্গে কথা বলে পুলিশ জানতে পারে, অভিযুক্ত গোলামের সঙ্গে একটি মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে তাঁর আলাপ। ‘গ্রাইন্ডার’ নামের ওই অ্যাপটি মূলত সমকামীদের। তদন্তে নেমে পুলি‌শ জানে, ওই অ্যাপের মাধ্যমে পুরুষরা নিজেদের মধ্যে ‘বিশেষ বন্ধুত্ব’ করতে পারে।

পুলিশের কাছে সুমন দাবি করেছেন, ওই অ্যাপের মাধ্যমে তিনি বেশ কয়েক জন বন্ধুর হদিশ পেয়েছিলেন। সেখানেই পরিচয় গোলামের সঙ্গে। অ্যাপ থেকে ফোন নম্বর পেয়ে গোলামের সঙ্গে বেশ কয়েক মাস ধরে ফোনে কথাও বলেন তিনি। সুমন একটি বেসরকারি সংস্থায় হিসাবরক্ষকের কাজ করেন। পুলিশকে তিনি জানিয়েছেন, গত৬ অগস্ট কড়েয়া এলাকার একটি গেস্ট হাউসে তাঁরা দু’জনে দেখা করার সিদ্ধান্ত নেন। গেস্ট হাইসটি ঠিক করেছিলেন গোলাম। সুমনের অভিযোগ, ওই গেস্টহাউসের একটি ঘরে তাঁরা ঘনিষ্ঠ হওয়ার ঠিক আগে গোলাম তাঁকে নগ্ন করে দেন। তারপর মোবাইলেএকের পর এক ছবি তোলেন।

আরও পড়ুন- বেলেঘাটায় ছিঁড়ে পড়ল সরকারি অফিসের লিফট, গুরুতর জখম চার আধিকারিক

 

আরও পড়ুন- প্রভাব খাটানোর অভিযোগ মেয়রকে

 

যদিও সেই ছবি তোলার সময় সুমন কোনও রকম বাধা দেননি। কিন্তু সুমনের অভিযোগ, এর পরেই গোলাম তাঁর কাছে টাকা দাবি করে। না দিলে ওই নগ্ন ছবি বিভিন্ন ওয়েবসাইট এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকিও দেখানো হয়। সুমন জানান, তাঁর কাছে নেই। তখনগোলাম তাঁর ডেবিট কার্ড কেড়ে নেন বলে পুলিশের কাছে অভিযোগে জানিয়েছেন সুমন। শুধু তাই নয়, ভয় দেখিয়ে জেনে নেওয়া হয় সেই কার্ডের পিন। এর পর সুমনকে ওই গেস্ট হাউসের ঘরে আটকে রেখে গোলাম কাছের এক এটিএম কাউন্টার থেকে ৩০ হাজার টাকা তুলে এনে কার্ড ফেরত দিয়ে দেনসুমনকে। সঙ্গে শাসানিও দেন, পুলিশকে বা অন্য কাউকে জানালে সুমনের নগ্ন ছবি ছড়িয়ে দেওয়া হবে।

তদন্তে নেমে গোলামের মোবাইল নম্বরের সূত্র ধরে এগোতে গিয়ে পুলিশ দেখে,সেটি ভুয়ো নামে নথিভুক্ত। অ্যাপে দেওয়া বিভিন্ন তথ্য এবং মোবাইলের টাওয়ার লোকেশনের সূত্র ধরে পুলিশ জানতে পারে, অভিযুক্ত গোলাম একটি অ্যাপ ক্যাব সংস্থার চালক। সেই সূত্রেই তিলজলার শিবতলা লেনে অভিযুক্তের হদিশ পায় পুলিশ। তাকে বুধবার রাতে পাকড়াও করার পরেই পুলিশ জানতে পারে, গোটা অপরাধের পিছনে রয়েছে একটি বড়সড় চক্র।এ প্রসঙ্গে ডিসি (দক্ষিণ-পূর্ব) অজয় প্রসাদ বলেন, ‘‘ওই অ্যাপ ক্যাব চালক ছাড়াও চক্রে অনেকে রয়েছে। পরিকল্পনা করে মানুষকে ফাঁদে ফেলে ব্ল্যাকমেল করছে এরা। বাকিদের পাকড়াও করার চেষ্টা চলছে।”

এক তদন্তকারী বলেন, ‘‘অভিযুক্ত আদৌ সমকামী নয়। এরকম আরও অনেকেই রয়েছে, যারা ফোনে সমকামীর ভান দেখিয়ে দেখা করার টোপ দেয়। পরে কোথাও দেখা করার পরিকল্পনা করে নগ্ন ছবি তোলে। এবং ব্ল্যাকমেল করে। শহরে এটা নতুন ট্রেন্ড বলেই মনে হচ্ছে। আমরা সব দিক খতিয়ে দেখছি।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন