বিধাননগর পুরসভা এলাকায় ৪১টি ওয়ার্ডের রাস্তার অবস্থা বহুদিন ধরেই খারাপ। এ বার সেই রাস্তা সারাইয়ের জন্য ৭৭ কোটি টাকা মঞ্জুর করল রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন দফতর। এই টাকায় মোট ৩৯টি ওয়ার্ডে রাস্তা মেরামতির কাজ করা হবে। 

পুরসভা সূত্রের খবর, মহিষবাথান ও সুকান্তনগরের মধ্যে দিয়ে ৩৫ এবং ৩৬ নম্বর ওয়ার্ডের রাস্তা মেরামত করা হয়েছিল কিছু দিন আগেই। তাই ওই দুই ওয়ার্ডের রাস্তা বাদ দিয়ে এ বার বাকি ওয়ার্ডগুলিতে কাজ হবে। সল্টলেকের বহু জায়গায় জলের পাইপলাইন নতুন করে বসানোর জন্য বহু রাস্তায় খোঁড়াখুঁড়ি করা হয়েছে। সেই সব রাস্তাগুলি সারানো হবে। মূলত সল্টলেক এবং রাজারহাট-গোপালপুরের রাস্তাই মেরামত করা হবে এ বারে। রাজারহাট এলাকার কিছু কংক্রিটের রাস্তাও মেরামত হবে। পুরসভা সূত্রের খবর, এ জন্য ইতিমধ্যে টেন্ডার ডাকা হয়েছে। কিছু কিছু কাজও শুরু হয়ে গিয়েছে। মোট খরচ বরাদ্দ হয়েছে ৭৭ কোটি টাকা।

সল্টলেকের বাসিন্দাদের অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরেই রাস্তার অবস্থা বেহাল থাকলেও এত দিন কেউ সে দিকে নজর দেননি। কিন্তু সামনে লোকসভা নির্বাচনের কারণে এ বার দ্রুত কাজ শুরু করা হয়েছে বলে মনে করছেন অনেকেই। আবার অনেক বাসিন্দার মতে, প্রতিদিন রাস্তার উপরে জল দিয়ে গাড়ি ধোয়ার কারণেই ক্রমশ সল্টলেকের রাস্তার অবস্থা খারাপ হচ্ছে। কারণ এতে রাস্তার পিচ দ্রুত উঠে যাচ্ছে বলেই মনে করছেন স্থানীয় বাসিন্দাদের অনেকে। এ নিয়ে বিধাননগরের ডেপুটি মেয়র তাপস চট্টোপাধ্যায় বলছেন, ‘‘পিচের শত্রু জল। রাস্তায় জল পড়লে রাস্তা নষ্ট হয়। এই বিষয়টি নিয়ে আমরা ইঞ্জিনিয়ার এবং বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করে কিছু করা যায় কি না, তা দেখব।’’