• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বেহালায় নার্সিংহোমে ভাঙচুর

vandalize
প্রতীকী ছবি।

চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল বেহালার রাজা রামমোহন রায় রোডের একটি নার্সিংহোম চত্বর। রোগীর বাড়ির আত্মীয় এবং ওই নার্সিংহোমের চিকিৎসক, দুই পক্ষই একে অপরকে মারধর করার অভিযোগ করেছেন। চিকিৎসকের গাড়ি ভাঙচুর করে নার্সিংহোম ভাঙচুরেরও অভিযোগ উঠেছে রোগীর পরিজনেদের বিরুদ্ধে। মারধরের চোটে নার্সিংহোমের এক কর্মীকেও সেখানে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, শনিবার বিকেলে সুদাম মণ্ডল নামে ডায়মন্ড হারবারের এক বাসিন্দা শ্বাসকষ্ট নিয়ে বেহালার ওই নার্সিংহোমে ভর্তি হন। রবিবার বিকেলে ওই রোগীর আত্মীয়েরা দেখেন, হাসপাতালের বিছানায় সুদামবাবুর ক্যাথিটার লাগানো নেই। তিনি বিছানায় প্রস্রাব করে ফেলেছেন। ওই রোগীকে দেখভাল করারও কেউ নেই। ওই রোগীর আত্মীয়দের অভিযোগ, নার্সিংহোমে রোগীর প্রতি এই অবহেলার কথা চিকিৎসকদের জানালে, তাঁদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করা হয়।

হাসপাতালের চিকিৎসকদের পাল্টা অভিযোগ, ওই রোগীর আত্মীয়েরা নার্সিংহোমের বাইরে গিয়ে স্থানীয় লোকজন ডেকে এনে চিকিৎসকদের গাড়ি এবং হাসপাতালের বাইরের কিছু জিনিসপত্র ভাঙচুর করেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে ঘটনাস্থলে আসে বেহালা থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। এ দিকে ওই রোগীর আত্মীয়দের অভিযোগ, চিকিৎসকেরাও তাঁদের লাঠি দিয়ে মারধর করেন। যদিও চিকিৎসকেরা রোগীর আত্মীয়দের মারধর বা দুর্ব্যবহার করার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে লাঠিচার্জ করে বলে স্থানীয় সূত্রের অভিযোগ। অবশ্য বেশি রাতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। পুলিশ উভয়পক্ষের বিরুদ্ধেই মামলা রজু করেছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন