• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

গাছের দেখভালে নিউ টাউনে যুক্ত হচ্ছেন বাসিন্দারাও

Environment
প্রতীকী ছবি।

নিউ টাউনকে গ্রিন সিটি হিসেবে গড়ে তুলতে একাধিক পদক্ষেপ করেছে প্রশাসন। বনসৃজন থেকে শুরু করে গাছের শনাক্তকরণে জোর দেওয়া হয়েছে। কিন্তু দৈনন্দিন নজরদারি নিয়ে উঠেছিল প্রশ্ন। সেই কাজে বাসিন্দাদের যুক্ত করে শহরের বনসম্পদ রক্ষায় নতুন পরিকল্পনা করল নিউ টাউন কলকাতা ডেভেলপমেন্ট অথরিটি (এনকেডিএ)। আপাতত পরীক্ষামূলক ভাবে এই কাজ করা হচ্ছে। সফল হলে পরে শহরের বাকি জায়গাতেও এই কাজ হবে। সম্প্রতি কয়েকটি আবাসন সমিতি সংলগ্ন এলাকার গাছের দায়িত্ব নেওয়ার বা দত্তক নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করে। তাদের হাতে সেই কাজের জন্য লিখিত স্বীকৃতি দিয়েছে এনকেডিএ।

এনকেডিএ, হিডকো এলাকায় অভিযোগ উঠছে, কোথাও গাছের ডাল কাটা হচ্ছে। কোথাও গুঁড়িতে পেরেক গুঁজে সাইনবোর্ড টাঙানো হচ্ছে। কোথাও আবার তার নিয়ে যাওয়ার জন্য গাছ ব্যবহার করা হচ্ছে। এ ছাড়াও গাছের ডাল শুকনো হয়ে পড়ে থাকলে দ্রুত পদক্ষেপ করা হচ্ছে না। এই প্রসঙ্গেই প্রশাসনের একাংশের মত, শহরের বনসম্পদ রক্ষার দায় প্রশাসনের। কিন্তু বাসিন্দারাও যদি এই কাজে এগিয়ে আসেন, তা হলে কাজ সুষ্ঠু ভাবে করা সম্ভব হবে। আর্থিক দায়িত্ব নয়, নজরদারি এবং প্রয়োজনে প্রশাসনকে খবর দেওয়ার মাধ্যমে এই কাজের সঙ্গে বাসিন্দারা যুক্ত হতে পারবেন। বাসিন্দাদের একাংশের কথায়, গাছের উপরে নজরদারির প্রয়োজনে তাঁরা সহযোগিতা করতে প্রস্তুত।

এনকেডিএ সূত্রের খবর, গাছের স্বাস্থ্য ঠিক আছে কি না, রক্ষণাবেক্ষণ হচ্ছে কি না, সে বিষয়ে বাসিন্দারা পর্যবেক্ষণগুলি প্রশাসনকে জানাবেন। তিন মাস অন্তর গাছের ছবি পাঠাবেন। যে যে আবাসিক সমিতি গাছের দায়িত্ব নেবে, সব জায়গায় তাদের নাম থাকবে। কোনও পথচারীর চোখেও যদি সমস্যা ধরা পড়ে, তা হলে সংশ্লিষ্ট আবাসিক সমিতিকে জানাতে পারবেন।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন