প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া-ইউনিভার্স ঊষসী সেনগুপ্তকে নিগ্রহের ঘটনায় জামিন পেল ধৃত সাত অভিযুক্ত। শুক্রবার আলিপুর আদালতের মুখ্য বিচারবিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেট শুভজিৎ মুখোপাধ্যায় ওই নির্দেশ দিয়েছেন। ওই ঘটনায় এখনও কয়েক জন অভিযুক্ত গ্রেফতার হয়নি। 

সরকারি কৌঁসুলি এ দিন আদালতে জানান, শুক্রবার পর্যন্ত অধরা বাকি অভিযুক্তদের গ্রেফতার করতে ধৃতদের হেফাজতে নিয়ে আরও জেরার প্রয়োজন। অভিযুক্তদের আইনজীবী সনৎ মণ্ডল পাল্টা দাবি করেন, যৌন হেনস্থার ধারা যুক্ত করা হলেও অভিযোগপত্রে কোথাও তা বলা হয়নি। পুলিশও ওই ধৃতদের কাছ থেকে কিছুই উদ্ধার করতে পারেনি। তাই ধৃতদের জামিন দেওয়া হোক। পরে বিচারক এক হাজার টাকার বন্ডে ধৃতদের জামিন দেন। একই সঙ্গে তাদের সপ্তাহে দু’বার তদন্তকারীদের কাছে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে। 

লালবাজার জানিয়েছে, আদালতের রায়ের কপি হাতে এলে তা খতিয়ে দেখা হবে। প্রয়োজনে জামিন খারিজের আবেদন করা হবে। প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া-ইউনিভার্সের গোপন জবানবন্দির আবেদন মঞ্জুর করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

সোমবার রাতে এক্সাইড মোড় এবং প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোড— শহরের ওই দু’জায়গায় আক্রান্ত হয়েছিলেন ঊষসী ও তাঁর সঙ্গী। অভিযুক্তেরা সকলেই মোটরবাইকে ছিল। ঊষসীরা একটি অ্যাপ-ক্যাব চেপে ফিরছিলেন। ক্যাবচালককে মারধরের ঘটনার ভিডিয়ো মোবাইলবন্দি করতে গিয়েই বাইকবাহিনীর নিগ্রহের শিকার হন দুই তরুণী। বাইকচালকদের মাথায় কেন হেলমেট নেই সেই প্রশ্ন করায় অভিযুক্তেরা গালিগালাজ করেন দুই তরুণীকে, এমনও অভিযোগ। ঊষসীদের অভিযোগ ছিল, ময়দান এবং চারু মার্কেট— দু’টি থানাই প্রথমে তাঁদের অভিযোগ নিতে চায়নি।

তবে পরে পুলিশ যৌন হেনস্থা ও মারধরের মতো ধারা দায়ের করে মঙ্গলবার সাত বাইক-আরোহীকে গ্রেফতার করে। ওই দিন আদালত ধৃতদের চার দিনের পুলিশি হেফাজত দেয়। শুক্রবার ওই অভিযুক্তদের ফের আলিপুর আদালতে তোলা হয়। 

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও।সাবস্ক্রাইব করুনআমাদেরYouTube Channel - এ।