লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক (ল্যান) বসে গিয়ে বিপত্তি কলকাতা বিমানবন্দরে। তার জেরে প্রায় ২০ বিমানের উড়ান দেরি হল।

সোমবার বিকেল সওয়া পাঁচটা নাগাদ এই ঘটনা ঘটে। তার ফলে বোর্ডিং পাস, জিনিসপত্রে ট্যাগ লাগানো সংক্রান্ত নানা কাজ আটকে যায়। পরিস্থিতি সামাল দিতে হাতে লিখেই বোর্ডিং পাস দিতে শুরু করে এয়ার ইন্ডিয়া, ইন্ডিগো, স্পাইস জেট-সহ সমস্ত উড়ান সংস্থা।

আচমকা এমন বিপত্তি দেখা দেওয়ায় বিপাকে পড়েন যাত্রীরা। সন্ধ্যা ছ’টা থেকে প্রায় ২০টি বিমান দেরিতে ওড়ায় বিমানবন্দরে আটকে পড়েন বহু মানুষ। তবে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের যাবতীয় কাজকর্ম ব্যাহত হলেও, এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল (এটিসি)-এর কাজকর্মে কোনও সমস্যা হয়নি। তাই সমস্যা হয়নি বিমান ওঠানামাতেও।

আরও পড়ুন: শোভনের ‘ঘর ওয়াপসি’ ১৯ মে? জোর জল্পনা​

এ দিন সন্ধ্যার পর বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ জানান, ঘটনার পরই যুদ্ধকালীন পরিস্থিতিতে ল্যান সারানোর কাজ শুরু হয়। ধীরে ধীরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে শুরু করে।

আরও পড়ুন: ভারত কিনলে আর কাউকে এফ-২১ যুদ্ধবিমান বেচবে না, জানাল মার্কিন সংস্থা​

তবে এ দিন শুধু কলকাতা বিমানবন্দরেই এমন সমস্যা দেখা দেয়। দেশের অন্য কোনও বিমানবন্দরে এমন সমস্যা হয়নি। কিছু দিন আগে, সারা ভারতে এয়ার ইন্ডিয়ার ‘সিস্টেম’ বসে যাওয়ায় তাদের সমস্ত উড়ানসূচিতে গন্ডগোল হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু অন্যান্য উড়ান সংস্থায় তার প্রভাব পড়েনি।