নাগেরবাজার বিস্ফোরণে আহত সীতা ঘোষের ত্বক প্রতিস্থাপিত হল বুধবার।

এ দিন দুপুর পৌনে ১টা নাগাদ অস্ত্রোপচার হয় এসএসকেএমের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন সীতার। ৪৫ মিনিট ধরে অস্ত্রোপচার করেন চিকিৎসকেরা। ২ অক্টোবর
সকালে ওই বিস্ফোরণে সীতার বাঁ পায়ের একটি অংশে ক্ষত তৈরি হয়। এ দিন তাঁর ডান পায়ের একটি অংশ থেকে ত্বক নিয়ে বাঁ পায়ে প্রতিস্থাপন করা হয় বলে জানিয়েছেন সীতার আত্মীয় দীপেঞ্জয়। এই অস্ত্রোপচারের পরে কিছুটা আছন্ন অবস্থায় রয়েছেন সীতা। এ দিন রাতে তাঁকে তরল খাবার দেওয়া হয়েছে বলে খবর। তবে সীতার শরীরে আরও অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন রয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের এক কর্তা। তিনি বলেন, ‘‘প্রয়োজন অনুযায়ী ধাপে ধাপে অস্ত্রোপচার করা হবে।’’ নাগেরবাজারের কাজিপাড়ায় এই বিস্ফোরণে সীতার আট বছরের ছেলে বিভাসের মৃত্যু হয়।

এসএসকেএম হাসপাতালেই রয়েছেন বিস্ফোরণ আর এক আহত, মধ্যমগ্রামের গ্রিন পার্কের বাসিন্দা শুভম দে। ২২ দিন কাটলেও শুভমের শারীরিক অবস্থার তেমন উন্নতি হয়নি বলে হাসপাতাল সূত্রে খবর। এক কর্তার বক্তব্য, ‘‘শুভমের শারীরিক অবস্থা কার্যত একই রয়েছে।’’ আর তাতেই চিন্তা বাড়ছে চিকিৎসকদের। বিস্ফোরণে আহত বাকি সকলেই হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন।