এমনিতে বিকেলের দিকে বেন্টিঙ্ক স্ট্রিট জমজমাটই থাকে। কিন্তু মঙ্গলবার বৃষ্টির জন্যে ভিড় কিছুটা কমই ছিল। কেউ দোকানের ছাউনিতে আশ্রয় নিয়েছিলেন। কেউ গাছের তলায়। সবে মাত্র বৃষ্টি একটু ধরেছে। এমন সময় একটি হলুদ ট্যাক্সি এসে থামল রাস্তার উপর। কিছুক্ষণ পর এক বৃদ্ধ দম্পতিকে নামিয়েই দ্রুত গতিতে চলে গেল ট্যাক্সিটি।

মালিকের গাড়ি পার্কিং করে এই দৃশ্য দূর থেকে দেখছিলেন অন্য এক গাড়ির চালক। তিনি কিছু বুঝে ওঠার আগেই হলুদ ট্যাক্সিটি দ্রুতগতিতে চলে যায়। তিনিই মোড়ের মাথায় দাঁড়িয়ে থাকা পুলিশকে খবর দেন। সঙ্গে সঙ্গে ভিড় ঘিরে ধরে ওই দম্পতিকে। চলে আসেন পুলিশকর্মীরাও। কিন্তু, ওই ট্যাক্সিকে আর ধরা যায়নি। স্থানীয় ব্যবসায়ীরা দম্পতির চোখেমুখে জল দিয়ে জ্ঞান ফেরানোর চেষ্টা করেন। দু’জনেই অচৈতন্য অবস্থায় ছিলেন।

কর্তব্যরত পুলিশ অফিসারেরা তাঁদের অ্যাম্বুল্যান্স করে হাসপাতালে নিয়ে যান। চিকিৎসকরা জানান, কথা বলার মতো অবস্থায় এখনও নেই তাঁরা। তাই এখনও পর্যন্ত ওই দম্পতির পরিচয় জানা যায়নি। কে বা কারা ওই দম্পতিকে বেন্টিঙ্ক স্ট্রিটে নামিয়ে গেলেন, তা-ও জানা যায়নি। প্রত্যক্ষদর্শী ওই গাড়ির চালককে জিজ্ঞাসাবাদ করে ট্যাক্সিচালকের সন্ধান পাওয়ার চেষ্টা করছে পুলিশ। পাশাপাশি ওই এলাকার সিসি ক্যামেরাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: প্রেসিডেন্সি আবার উত্তাল, সমাবর্তন সরাতে হল নন্দনে

পুলিশ জানিয়েছে, ওই দম্পতিরপোশাক দেখে মনে হচ্ছে তারা বাঙালি নন। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর ওই বৃদ্ধ ভাঙা গলায় একটু কথা বলার চেষ্টা করছিলেন। মনে করা হচ্ছে তাঁরা হিন্দিভাষী। দু’জনের জ্ঞান ফিরলে তবেই এ বিষয়ে বিস্তারিত জানা যাবে।

আরও পড়ুন: মেয়ের পড়ার জন্য মাসে ৪০ হাজার দিতে হবে শোভনকে, নির্দেশ দিল আলিপুর আদালত

পুলিশের এক অফিসার জানান, হঠাৎ করে নামিয়ে দিতে গেলে চিৎকার করতে পারেন, তাই হয়তো মাদকও খাওয়ানো হতে পারে ওই দম্পতিকে। তবে এখনই নিশ্চিত করে কিছু বলা যাচ্ছে না।