শিশুটি এখনও আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে রয়েছে। তাই জিডি বিড়লা স্কুলের মামলায় ভিডিও কনফারেন্স বা ভিডিও-সম্মেলনের মাধ্যমে টিআই বা শনাক্তকরণ প্যারেড হবে বলে শুক্রবার জানায় পুলিশ।

এ দিন আলিপুর বিশেষ আদালতে জিডি বিড়লা মামলার শুনানি ছিল। পুলিশ বিচারকের কাছে আবেদন জানায়, অভিযুক্তদের শনাক্ত করতে ভিডিও-সম্মেলনে টিআই প্যারেডের অনুমতি দেওয়া হোক। কেননা শিশুটি এখনও আতঙ্ক কাটিয়ে উঠতে পারেনি। বিশেষ আদালতের বিচারক অরুণকিরণ মুখোপাধ্যায় পুলিশের আবেদন মঞ্জুর করেছেন।

অভিযুক্তদের আইনজীবী তীর্থঙ্কর রায় ও জয়িষ্ণু বসু বলেন, ‘‘পুলিশ সাক্ষীদের গোপন জবানবন্দি এবং অন্য অনেক তথ্য আদালতে পেশ করতে পারেনি। তাতে বিচার-প্রক্রিয়া ব্যাহত হচ্ছে।’’ অভিযুক্তদের আইনজীবীদের দাবি অনুযায়ী বিচারক এ দিন সাক্ষীদের গোপন জবানবন্দি-সহ নানা তথ্যপ্রমাণ পেশ করার নির্দেশ দিয়েছিলেন। কিন্তু পুলিশ তা পেশ করেনি। গোপন জবানবন্দি-সহ সমস্ত তথ্যপ্রমাণ ১৯ জানুয়ারি আদালতে পেশ করার জন্য আলিপুরের মুখ্য বিচার বিভাগীয় বিচারককে এ দিন নির্দেশ দিয়েছেন বিশেষ আদালতের বিচারক। আদালত সূত্রে জানা গিয়েছে, গোপন জবানবন্দি এবং শনাক্তকরণ প্রক্রিয়া আলিপুরের বিচার বিভাগীয় বিচারকের অধীনেই রয়েছে। সেই জন্যই বিশেষ আদালতের বিচারক এই নির্দেশ দিয়েছেন।