• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ছবি তুলতে গিয়ে বিপত্তি, গঙ্গায় নিখোঁজ দুই কিশোর

Drowned at Ganges
রাহুল মণ্ডল (বাঁ দিকে) ও আরিয়ান কর। —নিজস্ব চিত্র

গঙ্গার ঘাটের ঢালে দাঁড়িয়ে মোবাইলে ছবি তুলছিল দুই কিশোর। অন্য দু’জন জলে নেমে স্নান করছিল। আচমকা জোয়ার এলে জলের তোড়ে গঙ্গায় নিখোঁজ হয়ে গেল জলে থাকা দু’জন। বৃহস্পতিবার বিকেলে ঘটনাটি ঘটেছে দমদমের কাশীপুরে রানি দেবেন্দ্রবালা ঘাটে। রাত পর্যন্ত খোঁজ মেলেনি গঙ্গায় নিখোঁজ হয়ে যাওয়া দুই কিশোরের।  

পুলিশ জানিয়েছে, নিখোঁজ দুই কিশোরের নাম আরিয়ান কর এবং রাহুল মণ্ডল। দু’জনেরই বয়স ১৬-১৭ বছর। আরিয়ানের বাড়ি চিড়িয়ামোড়ের সব্জিবাগানে, রাহুলের বাড়ি দমদম ক্যান্টনমেন্টে। তার মামার বাড়ি সব্জিবাগানে।

ঘটনার সময়ে ওই ঘাটেই ছিলেন ললিত রায় নামে স্থানীয় এক শ্রমিক। তিনি জানান, জোয়ারের জল বাড়তে থাকায় ওই কিশোরদের উঠে আসার জন্য সতর্কও করেন। কিন্তু তারা ওঠার আগেই ঘটে যায় দুর্ঘটনা। ললিতবাবু বলেন, ‘‘ঘাট থেকে উঠে রাস্তায় আসার পরেই পিছন থেকে চিৎকার শুনি।’’ খবর পেয়ে পুলিশ চার জন ডুবুরিকে নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয়। রাত পর্যন্ত চলে দুই কিশোরের খোঁজ। এ দিন রাতে দেবেন্দ্রবালা ঘাটে গিয়ে দেখা যায়, সেখানে থিকথিক করছে ভিড়। নিখোঁজ দুই কিশোরের পরিজনেরা ছাড়াও তাদের বন্ধুদের অনেকেই তখন ঘাটে দাঁড়িয়ে।

রাহুলের মা পূর্ণিমা মণ্ডল জানান, এ দিন বিকেলে মামাবাড়ি যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বেরোয় রাহুল। প্রায়ই এ ভাবে বিকেলের দিকে রাহুল চলে আসত মামাবাড়ির পাড়ায়। সেখানে তার প্রচুর বন্ধু। পূর্ণিমাদেবীর কথায়, ‘‘কিন্তু ও যে গঙ্গার ঘাটে আসবে, এমন কিছু বলেনি।’’ পুলিশ জানিয়েছে, রাহুলের মামাতো ভাই অঙ্কুশ কর, আরিয়ান, অয়ন বিশ্বাস ও আরও দুই বন্ধুর সঙ্গে এ দিন বিকেলে তারা দেবেন্দ্রবালা ঘাটে চলে এসেছিল। রাহুল ও আরিয়ান জলে নামে। অয়ন ও অঙ্কুশ তাদের ছবি তুলতে থাকে। তারা সকলেই ছিল ঢালের দিকে। সিঁড়ির দিকে ছিল না। ওই কিশোরদের সঙ্গে কথা বলে পুলিশ জেনেছে, আচমকা জোয়ার চলে আসায় ভেসে যেতে থাকে রাহুল ও আরিয়ান। অয়ন রাহুলকে তোলার চেষ্টায় তার হাত ধরে টানে। কিন্তু রাহুলের সঙ্গে সেও ধীরে ধীরে জলের দিকে নেমে যেতে থাকে। তখন ঘাটে দাঁড়ানো অন্য বন্ধুরা অয়নকে পিছন থেকে টেনে ধরে। এর মধ্যেই রাহুলের হাত ছেড়ে যায়। একই ভাবে আরিয়ানকে টেনে ধরার চেষ্টা করে অঙ্কুশ। কিন্তু সেও ব্যর্থ হয়।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন