• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কার্নিভালের আয়োজনে মাথাব্যথা বাড়াচ্ছে বৃষ্টি

Carnival
রেড রোডে কার্নিভালের মঞ্চ তৈরির কাজ চলছে। তার সামনে দিয়েই বিসর্জনের পথে। ছবি: দেবস্মিতা ভট্টাচার্য

Advertisement

রেড রোডে পুজো কার্নিভাল আগামীকাল, শুক্রবার। সেখানে এখন শেষ মুহূর্তের ব্যস্ততা তুঙ্গে। যদিও বৃষ্টি সেই কার্নিভালে বাদ সাধবে কি না, তা নিয়ে চিন্তায় রয়েছেন আয়োজকেরা। আবহাওয়া দফতর অবশ্য জানাচ্ছে, শুক্রবার সকাল থেকে আকাশ পরিষ্কার হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এই পরিস্থিতির মধ্যেই কার্নিভালে হাজির থাকতে চলেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। অন্তত প্রশাসনিক সূত্রে তেমনটাই খবর।

প্রশাসনের একটি অংশ জানাচ্ছে, রাজ্যপাল নিজেই চলতি বছরের কার্নিভাল দেখার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। তবে অন্য একটি অংশের দাবি, কয়েক দিন আগে রাজভবনে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তখন এই কার্নিভালে হাজির থাকা নিয়ে তাঁর সঙ্গে রাজ্যপালের কথা হয়। ওই অনুষ্ঠানে রাজ্যপালের বসার জন্য তৈরি করা হচ্ছে পৃথক একটি মঞ্চ। কলকাতা এবং শহরতলি মিলিয়ে ৮০টি পুজো কমিটি রাজ্য সরকার আয়োজিত এই কার্নিভালে অংশ নেবে বলে প্রশাসনিক সূত্রের খবর। প্রতিমা নিয়ে দুপুর ২টোর মধ্যে রেড রোডে পৌঁছে যাওয়ার জন্য ক্লাবগুলিকে বলা হয়েছে।

অনুষ্ঠান শুরু হবে বিকেল সাড়ে চারটেয়। তা চলার কথা প্রায় সাড়ে চার ঘণ্টা। কার্নিভালে হাজির থাকবেন বিভিন্ন দেশের দূতাবাসের প্রতিনিধিরা। থাকবেন সমাজের বিশিষ্টজনেরাও। সাধারণ মানুষও রেড রোডে হাজির থেকে দেখতে পাবেন কার্নিভাল। হাজার পাঁচেক মানুষের বসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। রেড রোডের দু’পাশে দু’টি মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে। কার্নিভালের মূল মঞ্চ তৈরি হচ্ছে রাঙামাটির জেলা বাঁকুড়া এবং বিষ্ণুপুরের পোড়ামাটির মন্দিরের আদলে। সেখানে শোভা পাচ্ছে টেরাকোটার কাজও।

এই বিপুল আয়োজন উপলক্ষে রেড রোডে বসানো হয়েছে ওয়াচটাওয়ার। সেখান থেকে নজরদারি চালাবে পুলিশ। রাস্তার দু’পাশ ঘিরে দেওয়া হয়েছে বাঁশ এবং লোহার ব্যারিকেডে। অনুষ্ঠানস্থলে সতর্ক প্রহরায় রয়েছেন পুলিশকর্মীরা। এলাকা পরীক্ষায় লাগানো হচ্ছে পুলিশ কুকুরও। তথ্য ও সংস্কৃতি দফতরের আধিকারিক এবং পূর্ত দফতরের ইঞ্জিনিয়ারেরা প্রস্তুতি তদারকি করছেন। বসানো হয়েছে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র।

রাজ্যে পালাবদলের পরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে ২০১৬ সাল থেকে রেড রোডে শুরু হয়েছে এই পুজো কার্নিভাল। চলতি বছরে পুজোর আগে থেকেই চলছে তার প্রস্তুতি। সব কিছু ঠিকঠাক হলেও মাঝেমধ্যে বাদ সাধছে প্রকৃতি। দশমীর দিন থেকে বৃষ্টি সেই প্রস্তুতিতে অন্তরায় হয়েছে। একাদশীর দিন, বুধবার দুপুরের বৃষ্টিতে ভিজেছে রেড রোডের মঞ্চ এবং মণ্ডপের কাপড়। গা চুঁইয়ে জলও পড়ছে। কাদাও হয়েছে বেশ কিছু জায়গায়।

জানা গিয়েছে, মূল মঞ্চের অদূরে আলোকসজ্জায় ফুটে উঠতে পারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের ছবি। রূপশ্রী, কন্যাশ্রী, সবুজ সাথী, খাদ্যসাথী, পথবন্ধু, দিদিকে বলো— সবই সেই আলোকসজ্জার অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন