• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

করাত দিয়ে গলা কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা যুবকের, বাঁচালেন ওসি

Suicide
প্রতীকী ছবি।

Advertisement

যানজটের অবস্থা খতিয়ে দেখতে অফিসটাইমে রাস্তায় টহল দিচ্ছিলেন কলকাতা পুলিশের একটি ট্র্যাফিক গার্ডের ওসি। কিছু দূর যাওয়ার পরেই তাঁর নজরে আসে, রাস্তার ধারে  ঝোপে এক যুবক শুয়ে আছেন। সন্দেহের বশে কাছে গিয়ে ওসি দেখেন, ওই যুবক করাত দিয়ে গলায় আঘাত করছেন। ক্ষতচিহ্ন থেকে রক্ত ঝরছে। অবস্থার গুরুত্ব বুঝে ওই অফিসার সঙ্গে থাকা পুলিশকর্মীদের বলেন যুবককে উদ্ধার করতে। পুলিশকর্মীরা উদ্ধার করার চেষ্টা করতেই পালিয়ে গিয়ে পাশের এক জলাশয়ে ঝাঁপ দেন যুবক। 
পরে স্থানীয় বাসিন্দাদের সাহায্যে তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায় পুলিশ।
ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার সকালে, গরফা থানা এলাকার ইএম বাইপাসের মন্দিরপাড়ার কাছে। ওই যুবক বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি। হাসপাতাল সূত্রের খবর, তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল। তবে বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত যুবকের পরিচয় জানা যায়নি। পুলিশের অনুমান, তিনি মানসিক ভাবে অসুস্থ। নির্মীয়মাণ মেট্রোর শ্রমিকদের থেকে করাতটি সংগ্রহ করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন তিনি।
লালবাজার সূত্রের খবর, পূর্ব যাদবপুরের ট্র্যাফিক গার্ডের ওসি তাপস মান্না রোজকার মতো এ দিন বাইপাসে টহল দিচ্ছিলেন। অভিষিক্তা মোড়ের কাছে মন্দিরপাড়ায় তাঁর চোখে পড়ে, নির্মীয়মাণ মেট্রো রেলের অংশের পাশে ঝোপে এক যুবক শুয়ে আছেন। করাতের মতো একটি বস্তু দিয়ে নিজের গলায় আঘাত করছেন। ওই আধিকারিক জানান, তিনি যুবকের অস্বাভাবিক আচরণ দেখেই চালককে গাড়ি থামাতে বলেন। সঙ্গে থাকা পুলিশকর্মীদের নিয়ে যুবকটিকে উদ্ধারের চেষ্টা করা মাত্রই তিনি পালিয়ে পাশের জলাশয়ে ঝাঁপ দেন। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, যুবককে জলে ঝাঁপ দিতে দেখে ওই পুলিশ অফিসার মেট্রোর সঙ্গে যুক্ত কর্মীদের সাহায্য চান। তাঁরাই জলে নেমে যুবককে উদ্ধার করেন।
লালবাজার জানিয়েছে, সম্প্রতি পূর্ব যাদবপুর ট্র্যাফিক গার্ডের অতিরিক্ত ওসি মলয় রায়ের তৎপরতায় প্রাণে বেঁচেছেন এক ক্যাবচালক। ঘটনার রাতে বাইপাসের ধারে একটি 
বিপণির সামনে ডিউটি করছিলেন মলয়বাবু। পথচলতি এক ব্যক্তি তাঁকে খবর দেন, কাছেই একটি ক্যাবে চালক বেহুঁশ হয়ে পড়ে রয়েছেন। খবর পেয়ে ওই পুলিশ আধিকারিক নিজেই ক্যাবটি চালিয়ে চালককে হাসপাতালে নিয়ে যান। হাসপাতাল সূত্রের খবর, ঠিক সময়ে চিকিৎসা শুরু হওয়ায় চালক বেঁচে যান।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন