• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিহারে কাজে গিয়ে অস্বাভাবিক মৃত্যু কিশোরের

Unnatural Death
শান্তনু নস্কর।

ভিন্ রাজ্যে কাজ করতে গিয়ে এক কিশোরের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় রহস্য দানা বেঁধেছে। 

মাসখানেক আগে ঠিকাদারের মাধ্যমে শান্তনু নস্কর (১৬) নামে সোনারপুর থানার নাটাগাছি এলাকার বাসিন্দা এক কিশোর কাজ করতে গিয়েছিল বিহারের পটনায়। শুক্রবার বিকেলে সেই ঠিকাদার সংস্থার দুই প্রতিনিধি শান্তনুর মৃতদেহ নিয়ে তার বাড়িতে আসেন। তাঁদের দাবি, কাজ করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা গিয়েছে শান্তনু। মৃতদেহের সঙ্গে ময়না-তদন্তের প্রাথমিক রিপোর্টও নিয়ে এসেছেন তাঁরা।

মৃত কিশোরের পরিজনেরা এর পরে সোনারপুর থানায় যান। শনিবার সকালে ওই থানার অফিসারেরা পটনা পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানতে পারেন, শান্তনু একটি শপিং মলে কাজ করছিল। সেখানে হ্যালোজেন লাইট সারাতে গিয়ে তড়িদাহত হয়েছে সে। তবে মৃতের পরিজনদের অভিযোগ, ঠিকাদার সংস্থার গাফিলতির কারণেই শান্তনু মারা গিয়েছে।

মৃতের মা মিনু নস্কর এ দিন বলেন, ‘‘ওই ঠিকাদার কলকাতায় কাজ দেওয়ার নাম করে আমার ছেলেকে নিয়ে গিয়েছিলেন। বলা হয়েছিল, কলকাতার কোনও অফিসে ওকে কাজ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এখন দেখছি, আমার ছেলেকে পটনায় নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।’’ শান্তনুর বাবা রাজমিস্ত্রির জোগাড়ে। মা পরিচারিকার কাজ করেন। এক দাদা আছেন, তিনি কেটারিং ব্যবসায় যুক্ত। কিন্তু লকডাউনে প্রায় সকলেই কর্মহীন হয়ে পড়েছিলেন। পরিবারের কোনও আয় ছিল না। সেই কারণেই নাবালক হওয়া সত্ত্বেও ঠিকাদারের অধীনে কাজ করতে চলে গিয়েছিল শান্তনু।

সোনারপুর থানা সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই ঠিকাদারের সঙ্গে যোগাযোগ করে গোটা বিষয়টি জানার চেষ্টা হচ্ছে। পটনা পুলিশের সঙ্গেও যোগাযোগ রাখা হয়েছে। ময়না-তদন্তের পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট হাতে পাওয়ারও চেষ্টায় আছে পুলিশ।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন