১। আমার নাম মহম্মদ ওবায়দুর রহমান মিঠুন। জন্ম তারিখ ২৪/০২/১৯৮৮ সালে বাংলাদেশের টাঙাইলের নাগরপুরে দুপুর একটা নাগাদ। আমি আমার চাকরি এবং পরিবারের আর্থিক পরিস্থিতি নিয়ে ভীষণই উদ্বিগ্ন। বিশেষ করে আমার চাকরি সম্পর্কে বিস্তারিত বললে ভাল হয়। বিদেশ যাওয়ার কোনও সুযোগ আসবে? বিবাহিত জীবন সম্পর্কে কিছু জানতে চাই। ধন্যবাদ।

উত্তরঃ- আপনি এত চিন্তা করবেন না। আগামী ২০২০ সালের এপ্রিল মাসের মধ্যে আপনার জীবনে সৌভাগ্যজনক পরিবর্তন হওয়ার প্রবল সম্ভাবনা লক্ষ্যণীয়। আশা করা যায় আপনি আপনার জন্মস্থান থেকে দুরে সাফল্য লাভ করবেন। সুতরাং কর্মসূত্রে বিদেশ যাত্রার সুযোগ আসা অসম্ভব নয়। সাধারণ ভাবে জীবনের পরের দিকে আপনার আর্থিক উন্নতি হবে। আগামীতে আপনি প্রচুর অর্থের লেনদেনের সঙ্গে যুক্ত থাকবেন। তবে লেনদেনের ব্যাপারে সৎ থাকতে হবে। আপনার গাড়ির সৌভাগ্য হবে। আপনি কল্পনা করতে এবং প্রেম করতে ভালবাসেন। তবে আগামীতে সমমনোভাবাপন্ন স্ত্রী থাকার জন্য আপনাকে সাধারণ ভাবে সৌভাগ্যবান বলা যেতে পারে। আপনার জীবনের সুখ আপনার উপরই নির্ভরশীল।

২। আমার  জন্ম তারিখ ২৮/০৬/১৯৯৯। জন্ম সময় দুপুর ১২টা ২০ মিনিটে কলকাতায়। আমি আমার ভবিষ্যৎ জানতে চাই। আমার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক।

উত্তরঃ- আপনার জন্মকুণ্ডলীতে শুভ ফলপ্রদ গ্রহসমন্বয় রয়েছে যা আপনাকে বুদ্ধিমান ও জ্ঞানী ব্যক্তিতে পরিণত করবে। শিক্ষাগত যোগ্যতা সাধারণের চেয়ে অনেক উচ্চস্তরীয় হবে। চিকিৎসা ক্ষেত্রে শিক্ষালাভ হতে পারে। আপনি আগামীতে সরকারি অথবা বেসরকারি কোনও সংস্থায় যথেষ্ট উচ্চপদে অধিষ্টিত হবেন। তবে আপনার বিবাহ কিছুটা বেশি বয়সে হবে। বিবাহ ফলপ্রদ হবে এবং আজীবন সুখী থাকবে। তবে বর্তমানে আপনার শনির সাড়ে সাতি চলার দরুন সর্ব বিষয়ে সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত। কপালে কমলা সিঁদুরের ফোঁটা পরতে পারেন। বাড়িতে দক্ষিণাকালীর পূজা করুন।

৩। আমার জন্ম তারিখ ১১/০১/১৯৭৮ ভোর ৫টায়। বর্তমানে আমার সময় খুব খারাপ যাচ্ছে। ভাল সময় কবে আসবে? আমার বাবা-মায়ের শরীর-স্বাস্থ্য কেমন যাবে?

উত্তরঃ- বর্তমান বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে আপনার জীবনে শনির সাড়ে সাতির প্রভাব শুরু হয়েছে। হঠাৎ করে চাকরিতে বদলি হতে পারে। স্বাস্থ্য ভাল যাবে না। পিতার শরীর স্বাস্থ্য চিন্তার কারণ হলেও মাতার শরীর স্বাস্থ্য ভালই থাকবে। প্রতি শনিবার ও মঙ্গলবার নিরামিষ আহার করুন। হনুমানজী ও দক্ষিণাকালীর পুজো করুন। জীবনের মধ্য ভাগে কোনও সময়ে আপনি অসাধারণ সাফল্য অর্জন করবেন। আপনার বৈবাহিক জীবনে কিছু প্রতিকূল পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে পারেন। মনের জোর বাড়ানোর জন্য ডান হাতে নীল সুতো বেঁধে রাখলে শুভ হবে। আগামী ২০২৬ সালে মে মাসের আপনার জীবনে সৌভাগ্যজনক পরিবর্তন আশা করা যায়।

৪। মাননীয় মহাশয়, আমার জন্ম ১৩ নভেম্বর, ১৯৭৯। জন্ম সময় রাত ১১টা। আমার ভবিষ্যৎ কেমন যাবে? আর্থিক ভাগ্য কেমন যাবে? বিদেশ যাত্রা কবে হবে?

উত্তরঃ- আপনার জন্মকুণ্ডলীতে আয়পতি গ্রহ শুভ পঞ্চম গৃহে অবস্থিত হওয়ার দরুন শুভ ফলপ্রদ ধনযোগ উৎপন্ন হয়েছে, যা বিভিন্ন সূত্র এমনকি নতুন উদ্যোগের থেকে ধনাগম নিশ্চিত করবে। অনিশ্চিত বিনিয়োগের সময় আপনার যত্নবান হওয়া উচিত হবে। দূরদৃষ্টির অভাব ক্ষতির কারণ হতে পারে। জীবনের মধ্যভাগে কোনও সময়ে আপনি অসাধারণ সাফল্য অর্জন করবেন। আপনি উত্তম গৃহের মালিক হবেন। ভ্রমণের জন্য বিদেশ যাত্রা অসম্ভব নয়। তবে জীবিকা সংক্রান্ত বিষয়ে আপনার স্থান পরিবর্তন করার প্রয়োজন হবে না।

৫। মহাশয়, দয়া করে আমার নাম প্রকাশ করবেন না। আমার জন্ম তারিখ ০২/০৩/১৯৫৬। জন্ম সময় সন্ধ্যা ৬টা ৩২ মিনিট। জন্মস্থান পুরুলিয়া। আমার পরিবার নিয়ে আমি খুব সমস্যার মধ্যে আছি। আগামীতে আমার পরিবারের কী হবে? আমার ব্যক্তিগত জীবনেরই বা কী হবে? আমার মেয়ের বিয়ে নিয়েও চিন্তিত, কবে নাগাদ আমার মেয়ের বিয়ে হতে পারে? দয়া করে উত্তর দেবেন।

উত্তরঃ- একজন সফল ব্যক্তির সকল গুণ আপনার মধ্যে আছে ঠিকই। তবে আপনি আনন্দকে উপভোগ করতে চান। যৌন সুখ পেতে আপনি গভীর ভাবে আগ্রহী। কোনও কোনও সময়ে এই ব্যাপারে আপনাকে স্বার্থপর মনে হতে পারে। এর ফলে আপনার সংসার জীবনে সমস্যা সম্মুখীন হতে হয়। অবশ্য আপনার কাছে যে কেউ আবেদন করতে ভয় পায়। আপনি ঐতিহ্যকে তুলে ধরেন, কিন্তু আপনি হলেন অসহিষ্ণু। বর্তমানে আপনি আধ্যাত্মিক পথের অনুসন্ধান করতে পারেন এবং ফলে পরিবারের থেকে নিজের দূরত্ব তৈরি হবে। আপনি ঈশ্বর অনুসন্ধানী হয়ে উঠতে পারেন। আপনি জীবনের ধর্ম দ্বারা গভীর ভাবে প্রভাবান্বিত হবেন এবং মানুষের জীবনের আনন্দ ও দুঃখ উভয়েরই অভিজ্ঞতা হবে। আপনি অন্য দেশে অস্থায়ী ভাবে বা চিরকালের জন্য চলে যেতে পারেন। জনসাধারণকে পরীক্ষা করা ও বিশ্লেষণ করার ক্ষমতা আপনার বিদ্যমান। অপরের প্রতি আপনার সত্ত্বার প্রবৃত্তি প্রশংসিত হবে। আপনার জন্মকুণ্ডলী অনুসারে আপনার মেয়ের বিবাহ আগামী ২০২২ সালের মধ্যেই হওয়া উচিত। তবে আপনার মেয়ের ব্যক্তিগত রাশিচক্র অবশ্যই বিচার্য। আগামীতে আপনি স্নায়বিক সমস্যায় ভুগতে পারেন। আপনাকে একটি কথা না বললেই নয় যে, আপনার গুরুজনদের সঙ্গে যদি ভুল বোঝাবুঝি হয় তবে আপনার উচ্চাকাঙ্খা পরিপূর্ণ নাও হতে পারে। আপনি যদি সঠিক ভাবে চলতে পারেন তবে আপনার পারিবারিক জীবন সুখের হবে।

৬। মহাশয়. আমার জন্ম তারিখ ২৩/১২/১৯৯৯ সালে রাত ১০টায় বেথুয়াডহরিতে। আমার চাকরি, বিবাহিত জীবন সম্পর্কে জানতে চাই।

উত্তরঃ- চাকরি এবং ব্যবসা উভয় ক্ষেত্রেই আপনি সাফল্য লাভ করবেন। আপনি চাকরিরত হলেও আগামীতে নিজস্ব ব্যবসা শুরু করতে পারেন। বৈদেশিক বানিজ্যের মাধ্যমে বা উত্তরাধিকার সূত্রে আপনার ধনলাভ হবে। আপনি নিঃসন্দেহে ধনী হবেন। বিবাহিত জীবনে আপনি স্পর্ধামূলক পরিস্থিতির সম্মুখীন হবেন। আকস্মিক ভাবে কারও সঙ্গে বিচ্ছেদ হতে পারে। প্রয়োজনীয় প্রতিকার অবশ্যই করণীয়। অবশ্য আপনি এ বিষয়ে সৌভাগ্যবান হবেন যে আপনি আপনার প্রিয়জনদের কাছ থেকে সমর্থন লাভ করবেন।

৭। আমি বিশ্বজিৎ দাস। আমার জন্ম তারিখ ২৩/০৩/১৯৮২। আমার জন্মস্থান মধ্যমগ্রাম। আমার কেরিয়ারের ভবিষ্যৎ নিয়ে জানাবেন।

উত্তরঃ- আপনাকে কর্মক্ষেত্রে লড়াই করে নিজের স্থান টিকিয়ে রাখতে হবে। তবে বর্তমানে আপনার কর্মক্ষেত্রে পদোন্নতির প্রবল সম্ভাবনা লক্ষ্যণীয়। বিভিন্ন সূত্র থেকে আপনি ধন উপার্জন করবেন কিন্তু আপনি মানসিক ভাবে শান্তি যা কিনা আপনার কাছে খুবই মূল্যবান তা নাও পেতে পারেন। আপনি নিজ প্রচেষ্টায় জীবনে উচ্চস্তরে অধিষ্ঠিত হবেন। কর্মসূত্রে আপনার দূরযাত্রা অথবা বিদেশ যাত্রা হতে পারে।

৮। মহাশয়, আপনার নিকট আমার বিশেষ অনুরোধ, আমার জন্মতথ্য প্রকাশ করবেন না। আমার ভবিষ্যৎ জীবন সম্পর্কে জানতে চাই। আমার জীবনসঙ্গী কেমন হবে?

উত্তরঃ- সৌভাগ্যবান সন্তান হিসাবেই আপনার জন্ম। জীবনের প্রথমার্ধ অপেক্ষা দ্বিতীয়ার্ধে আপনি অধিক সৌভাগ্যবান হবেন। সাধারণ ভাবে আপনার অর্থোপার্জনের একাধিক উৎস থাকবে। অবশ্য আগামীতে মামলা মোকদ্দমা বা শক্তিশালী শত্রুতার সম্মুখীন হওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। ফাটকার ব্যাপারে আপনার পছন্দ আছে। কিন্তু বেশি অর্থ ব্যয় না করাই ভাল। আপনি বৃহৎ প্রতিষ্ঠানের কাজে অবশ্যই সাফল্য পাবেন। শিল্পকলা বিষয়ে অনুশীলনেও আপনি সাফল্য পাবেন। আপনার জীবনসঙ্গী হবে আনন্দদায়ক ও তিনি আপনার জীবনকে পরিপূর্ণ করে তুলবে।

জ্যোতিষীর কাছে প্রশ্ন পাঠাতে মেল করুন:
jeevandarshan@abpdigital.in