১। মাননীয় মহাশয়, আমার জন্ম বর্ধমানে। সকাল সাড়ে ১০টায়। আমার জন্ম তারিখ ২১ ফেব্রুয়ারি, ১৯৯৬। বর্তমানে ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়ছি। সরকারি চাকরি পাব?

উত্তরঃ- আপনি এমন কিছু প্রতিযোগিতামূলক পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে পারেন, যা কিনা আপনার জীবনযাত্রাকে আমূল পরিবর্তিত করবে। আপনি নিশ্চিত থাকতে পারেন যে, আপনি কোনও বৃহৎ প্রতিষ্ঠান অথবা সম্ভবত কোনও সরকারি বিভাগে যুক্ত হবেন। ঈশ্বর আপনার মঙ্গল করুন। আপনার পরিবার আপনার জন্য গর্ববোধ করবেন।

২। আমার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক। আমার জন্ম তারিখ ০১/০৩/১৯৯০। জন্মস্থান কলকাতায় সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায়। আমি বিবাহিতা। আমার ভবিষ্যৎ সম্পর্কে জানতে চাই।

উত্তরঃ- আপনি এ বিষয়ে সৌভাগ্যবতী হবেন যে, জীবনের তিন ভাগের মধ্যে শেষ ভাগই হবে সর্বশ্রেষ্ঠ। পারিবারিক পারিপাশ্বির্কতার ব্যাপারে বলতে গেলে, আপনি শান্তি ও সামঞ্জস্যের ব্যাপারে সৌভাগ্যবতী হবেন। আপনার সুফলপ্রদ প্রেম সম্পর্ক হবে। আকর্ষণীয় চেহারা সম্পন্ন উজ্জ্বল সন্তান হবে আপনার। প্রথম সন্তান কোনও বিশেষ শিল্পকলায় ধীশক্তি সম্পন্ন হবে। আপনার মায়ের জন্য কোনও সমস্যা হতে পারে। আগামীতে গৃহে চুরি বা অগ্নিকাণ্ড থেকে ক্ষতি হতে পারে। স্বাস্থ্যের ব্যাপারে যত্নবান হতে হবে।

৩। আমার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক। আমার জন্ম তারিখ ৫/০৫/১৯৯০। সময় বিকেল ৩ টে ২৫ মিনিটে। জন্ম কলকাতায়। আমি একটি সম্পর্কে রয়েছি। কবে আমাদের বিয়ে হবে?

উত্তরঃ- সম্পর্কের ব্যাপারে অত্যন্ত সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে কেননা আপনার সম্মান বিপন্ন হতে পারে। প্রতিকূল সময়ে আবেগতারিত হওয়ার প্রবণতা পরিত্যাগ করতে হবে। আপনার বিবাহ কিছুটা বেশি বয়সে হবে। আগামী ২০২২ সালের এপ্রিল মাসের পর বিবাহ সম্পন্ন হওয়ার প্রবল সম্ভাবনা লক্ষ্যণীয়।

৪। আমার জন্ম তারিখ ১১/০৮/১৯৫০। সকাল ৬ টা ১৯ মিনিটে, বর্ধমানে। আমি আমার নাম জানাতে চাই না। আমি একটি ফ্ল্যাট কিনতে চাই, কিন্তু পছন্দ মতো খুঁজে পাচ্ছি না। কবে পাব? সব ঠিকঠাক হবে তো?

উত্তরঃ- আপনাকে অনেক বাধা বিপত্তি পেরতে হতে পারে এবং আপনার উপার্জন প্রচণ্ড ভাবে হ্রাস বৃদ্ধি পেতে পারে। আপনি অনিশ্চিত বিনিয়োগ করতে পারেন। সতর্ক থাকুন। আগামী ২০১৯ সালের মে মাসের পর গৃহ সুখ আশা করা যায়। আগামীতে আপনি আর্থিক এবং পারিবারিক বিষয়ে স্বচ্ছ্বল থাকবেন।

৫। আমার জন্ম ২০০১ সালের ১২ অগস্ট রাত ৯ টার সময়। দিনটি ছিল রবিবার। আমার ভবিষ্যত্ সম্পর্কে বলবেন।

উত্তরঃ- আপনার আক্রমণাত্নক প্রকৃতি থাকবে এবং সামাজিক কর্ম ও রাজনৈতিক কার্যকলাপে আপনার আগ্রহ থাকবে। আপনার অনেক গুণ থাকবে এবং আপনি প্রভাবশালী বক্তা হিসেবে পরিগণিত হবেন। আপনি আগামীতে সরকারি চাকরিতে কর্মরত হতে পারেন। অথবা কোনও অগ্রণী কর্মের মাধ্যমেও সাফল্য পাবেন। আপনার গুপ্তশত্রু থাকতে পারে অথবা আপনার কোনও বন্ধু শত্রুতে পরিণত হতে পারে। যে জন্য আপনাকে সতর্ক থাকতে হবে। আপনার বিবাহ কিছুটা বেশি বয়সে হবে। বর্তমানে শিক্ষাক্ষেত্রে বিশেষ মনযোগের প্রয়োজন।

৬। আমার জন্ম তারিখ ২৬ জুন, ১৯৬৬ সাল। জন্ম সময় সকাল ১১টা। জন্মস্থান মেদিনীপুর। আমার ভবিষ্যত্ সম্পর্কে বলবেন।

উত্তরঃ- প্রথমত আপনার পরিবার আপনার জন্য গর্ববোধ করবে এবং আপনিও সুযোগ্য সন্তান হবেন। আপনার প্রশাসনিক যোগ্যতা আপনাকে উচ্চপদে অধিষ্ঠিত করবে। আপনার জন্মকুণ্ডলী অনুসারে সরকারি দফতরে যুক্ত থাকা নির্দেশ করে। আপনি সমৃদ্ধিশালী জীবন উপভোগ করবেন। আপনি নিজস্ব বাড়ির মালিক হবেন। আগামীতেও জমিজমা লাভের সম্ভাবনা। আর্থিক এবং পারিবারিক বিষয়ে আপনি স্বচ্ছল অবস্থায় থাকবেন।

৭। আমার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক। আমার জন্ম ১৭ নভেম্বর, ১৯৭৭। বিকেল ৪টেয় কলকাতায়। আমার অর্থভাগ্য কেমন যাবে? লটারি ভাগ্য কেমন?

উত্তরঃ- আপনার শনির সাড়ে সাতি চলছে। চলবে আগামী সাড়ে সাত বছর। দোষ কাটানো অবশ্যই প্রয়োজন। জীবনের কিছু কিছু বিপদ থেকে রাশিপতি শনি রক্ষা করবে অবশ্যই। বর্তমানে আর্থিক বিষয়ে ভাগ্য মধ্যম প্রকার থাকবে। ব্যয় নিয়ন্ত্রণ না করলে অর্থাভাব দেখা দিতে পারে। অকারণে ব্যয় বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আবেগের বশে বড় বিনিয়োগ করা উচিত হবে না। তবে আত্মবিশ্বাস অর্থ উপার্জনে সাহায্য করবে। যথাসম্ভব অর্থ সংগ্রহ করার চেষ্টা করুন। লটারিতে হঠাৎ অর্থ প্রাপ্তির সম্ভাবনা রয়েছে।

৮। আমার বৌদির জন্ম ৫ মে, ১৯৭২। সন্ধ্যা ৭টা ৫৫ মিনিটে। আমার দাদার সঙ্গে তাঁর কিছুতেই মিল হচ্ছে না। এর প্রতিকার কী আছে?

উত্তরঃ- প্রতিকার অবশ্যই আছে। তবে আপনার দাদার জন্ম তথ্য প্রয়োজনীয়। যাই হোক, আপনার বৌদির মাঙ্গলীক দোষ বিদ্যমান। প্রতিকার অবশ্যই করণীয়। আপনার বৌদির জন্মকুণ্ডলী অনুসারে বৈবাহিক বা রোমান্টিক জীবনে কিছু প্রতিকূল পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে পারেন। জীবনে এমন কোনও পরিস্থিতির উদ্ভব হতে পারে যাতে অন্য লোকেরা ওঁকে ভুল বুঝতে পারে। তবে আপনার দাদার সমর্থন আপনার বৌদির ক্রমিক উন্নতির প্রত্যাশা বৃদ্ধি করবে। তবে আপনার বৌদি এ বিষয়ে সৌভাগ্যবতী যে, জীবনের শেষ ভাগই হবে সর্বশ্রেষ্ঠ। বর্তমানে আপনার বৌদির সাড়ে সাতি চলছে। দোষ কাটানো উচিত। গৃহের ভিতরে নীলের ছোঁয়া মানসিক প্রশান্তি আনবে।

জ্যোতিষীর কাছে প্রশ্ন পাঠাতে মেল করুন:
jeevandarshan@abpdigital.in