• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ইছামতীতে উদ্ধার হল প্রতিবন্ধী কিশোরের দেহ

Advertisement

অস্বাভাবিক মৃত্যু হল পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রের। শুক্রবার সকালে বনগাঁর ফকিরবাগান এলাকায় ইছামতী নদী থেকে সুজিত মণ্ডল (১৩) নামে শারীরিক ও মানসিক প্রতিবন্ধী ওই কিশোরের দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তার বাড়িও ওই এলাকায়। একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করা হয়েছে। দেহটি ময়নাতদন্তের জন্য বনগাঁ মহকুমা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই কিশোর ও তার বোন সোনালি কেউটিপাড়া জেএন রায় উচ্চ বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণিতে পড়াশোনা করত। তার মা ঝুনুদেবী অন্যের বাড়িতে পরিচারিকার কাজ করেন। তাঁর চার ছেলে মেয়ে। কয়েক বছর আগে তাঁর স্বামী মারা গিয়েছেন। সুজনের দুই দিদির বিয়ে হয়ে গিয়েছে।

শুক্রবার সকাল ৮ নাগাদ ঝুনুদেবী কাজে বেরিয়েছিলেন। প্রতি দিনের মতো এ দিনও তিনি বাড়ির বারান্দার খুঁটির সঙ্গে ছেলেকে দড়ি দিয়ে বেঁধে রেখে যান। সোনালি বাড়িতেই ছিল। সে জানায়, বেলা এগারোটা নাগাদ  সুজন তার দড়ি খুলে দিতে বললে সে বাঁধন খুলে দেয়। তারপরেই বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায় সুজন। তখন থেকেই সে নিখোঁজ ছিল। কয়েকজন স্থানীয় বাসিন্দা জানিয়েছেন, শুক্রবার বেলা এগারোটার পরে শেষবারের মতো তাকে স্থানীয় মুড়িঘাটা বাজার এলাকায় দেখা গিয়েছিল। বিকেল চারটে নাগাদ কাজ সেরে বাড়ি ফিরে ছেলেকে না দেখতে পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন ঝুনুদেবী। গ্রামের লোকেরাও খুঁজে পাননি। সকালে স্থানীয় বাসিন্দারা দেখতে পান সুজনের মৃতদেহ বাড়ির কাছেই ইছামতীতে ভেসে উঠেছে। 

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন