• প্রসেনজিৎ সাহা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সুন্দরবনে ফের সক্রিয় বাংলাদেশি গরু পাচারকারী

Sundarbans
শুক্রবার গভীর রাতে এই নৌকো উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিজস্ব চিত্র

সুন্দরবনের নদীপথ ধরে ফের সক্রিয় হয়ে উঠছে বাংলাদেশি গরু পাচারকারীরা। বেশ কিছু দিন এই পথে পাচার বন্ধ থাকলেও নতুন করে গত কয়েক দিন ধরেই সুন্দরবনের রায়মঙ্গল নদীর পথ ব্যবহার করে এ দেশ থেকে গরু নিয়ে বাংলাদেশে পাড়ি দিচ্ছে পাচারকারীরা। শুক্রবার রাতে বিশেষ সূত্রে এ রকমই খবর পেয়ে সুন্দরবন কোস্টাল থানার পুলিশ মরিচঝাঁপি জঙ্গলের কাছে রায়মঙ্গলের শাখা ম্যালমেলে সারসা নদীতে তল্লাশি অভিযান চালিয়ে গরু বোঝাই একটি ভুটভুটি উদ্ধার করে। এ ছাড়াও, ১৫ রাউন্ড গুলি ও একটি বন্দুক উদ্ধার হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রের খবর, গত বেশ কয়েক মাস সুন্দরবনের নদীপথ ব্যবহার করে গরু পাচার বন্ধ ছিল। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বার বার গরু পাচারের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছেন। সেই মতো স্থানীয় পুলিশ-প্রশাসন কড়া নজরদারি চালিয়ে গরু পাচার বন্ধ করে দিয়েছিল। কিন্তু সম্প্রতি বেশ কিছু পাচারকারী আবার সক্রিয় হয়ে উঠেছে। ইতিমধ্যেই সুন্দরবনের একাধিক নদীপথ ব্যবহার শুরু করেছে তারা। গোয়েন্দা দফতর সূত্রের খবর, সুন্দরবনের ঝড়খালির বালিখাল থেকে যন্ত্রচালিত নৌকোয় গরু ভর্তি করে তা একাধিক নদী, খাঁড়ি ঘুরে রাতে রায়মঙ্গল নদী পেরিয়ে বাংলাদেশে পাড়ি দিচ্ছে। অন্য দিকে, বাসন্তীর সরবেড়িয়া থেকে গরু নৌকোয় চাপিয়ে ছোটমোল্লাখালি, কালীদাসপুর হয়ে রায়মঙ্গল ধরে বাংলাদেশের দিকে রওনা দিচ্ছে। গোসাবার সূর্যবেড়িয়া এলাকা থেকেও গরু পাচারের কাজ পাচারকারীরা নতুন করে শুরু করেছে বলে দাবি গোয়েন্দা দফতরের। এ বিষয়ে ইতিমধ্যেই তদন্তও শুরু করেছে তারা। গোয়েন্দা দফতর সূত্রের খবর, সুন্দরবনের নদীপথ ব্যবহার করে বাংলাদেশের খুলনা, কায়রা এলাকায় নিয়ে যায় পাচারকারীরা। সেখান থেকে দেশের অন্যত্র পাচার করা হয় গরু।     

শুক্রবার রাত দেড়টা নাগাদ সুন্দরবন কোস্টাল থানার পুলিশ খবর পায়, একদল গরু পাচারকারী ভুটভুটিতে করে বাংলাদেশে গরু নিয়ে যাচ্ছে। মরিচঝাঁপি জঙ্গলের কাছে তল্লাশি অভিযান চালায় পুলিশ। পাচারকারীরা নৌকো ফেলে দিয়ে নদীতে ঝাঁপ দেয়। প্রাথমিক ভাবে পুলিশের অনুমান, তিন-চার জন পাচারকারী ছিল। নদীতে ঝাঁপ দিয়ে তারা পালিয়ে যায়। তাদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, ন’টি গরু উদ্ধার হয়েছে। ভুটভুটি-সহ একটি আগ্নেয়াস্ত্র ও ১৫ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে পুলিশ। বারুইপুর পুলিশ জেলার সুপার কামনাশিষ সেন বলেন, ‘‘সুন্দরবনের নদীপথগুলিতে কড়া নজরদারি শুরু হয়েছে, যাতে এই পথ ব্যবহার করে কোনও পাচার বা অসামাজিক কাজ না হতে পারে। সেই নজরদারির জন্যই এ দিন গরু-সহ পাচারকারীদের একটি ভুটভুটি উদ্ধার হয়েছে। এই ঘটনার সঙ্গে কে বা কারা জড়িত, সে বিষয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন