পঞ্চায়েতের সরকারি কর্মচারীদের জোর করে বাইরে বের করে পঞ্চায়েত অফিসে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ দেখালেন বিজেপির নেতা-কর্মীরা। 

শুক্রবার বেলা ১২টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটেছে গোপালনগর থানার গঙ্গানন্দপুর পঞ্চায়েতে। খবর পেয়ে পুলিশ অফিসের তালা খুলতে গেলে বিক্ষোভকারীদের বচসা বাধে। পরে অবশ্য পুলিশ বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দেয়।   

বেআইনি জমায়েত, সরকারি কর্মীদের জোর করে বের করে দেওয়া দেওয়া, সরকারি অফিসে তালা ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগে পুলিশ দু’জন বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতার করেছে। পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতদের নাম শৈলেন ভক্ত ও ভোলানাথ রায়। 

পঞ্চায়েত ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গঙ্গানন্দপুর পঞ্চায়েতে সদস্য সংখ্যা ২৫ জন। বিজেপির ৯ জন। তাঁদের অভিযোগ, এক বছর হতে চলল, প্রধান তৃণমূলের জাফর আলি মণ্ডল বিরোধী সদস্যদের সম্পূর্ণ অন্ধকারে রেখে এলাকার কাজ করছেন। বিজেপির সদস্যদের গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে না। 

বিরোধী দলনেতা বিজেপির পবিত্রকুমার সরকার বলেন, ‘‘শৌচালয় তৈরির তালিকা ও গরিব মানুষ কারা সরকারি প্রকল্পে বাড়ি পাচ্ছেন, তা আমাদের জানানো হচ্ছে না। প্রধানের কাছে প্রাপকদের নামের তালিকা চাওয়া হয়েছে। তিনি ও দেননি।’’ বিজেপির অভিযোগ, আগে বাড়ি পেয়েছেন, এমন মানুষের নামও নতুন প্রাপকদের তালিকায় রয়েছে। 

প্রধান অবশ্য বিজেপির অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন। তাঁর কথায়, ‘‘বিজেপির পঞ্চায়েত সদস্যদের তাঁদের সংসদ এলাকায় কারা শৌচালয় বাড়ি পেয়েছেন, তার তালিকা দেওয়া হয়েছে। কিন্তু ওঁরা গোটা পঞ্চায়েত এলাকার তালিকা চাইছেন। সেটা দেওয়া সম্ভব নয়। ওঁরা তালিকা নিয়ে রাজনীতি করবেন।’’