জ্বর-ডেঙ্গি ছড়ালেও এ বার ডেঙ্গিতে মৃত্যু ঠেকানো যাচ্ছে বলে দাবি করলেন রাজ্যের স্বাস্থ্য অধিকর্তা অজয় চক্রবর্তী। বনগাঁ মহকুমায় এ বারও জ্বর-ডেঙ্গির প্রকোপ ছড়িয়েছে। রোজই জ্বর-ডেঙ্গি নিয়ে বনগাঁ মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন অনেকেই। 

বনগাঁর ডেঙ্গি পরিস্থিতি ও মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি ডেঙ্গি আক্রান্তদের চিকিৎসা পরিষেবা খতিয়ে দেখতে স্বাস্থ্য অধিকর্তা শনিবার সকালে মহকুমা হাসপাতালে আসেন। তিনি ডেঙ্গি আক্রান্ত রোগীদের সঙ্গে কথা বলেন। হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ড, ব্লাডব্যাঙ্ক, প্যাথলজি বিভাগও ঘুরে দেখেন। তাঁর সঙ্গে ছিলেন হাসপাতাল সুপার শঙ্করপ্রসাদ মাহাতো। 

পরে স্বাস্থ্য অধিকর্তা বলেন, ‘‘ডেঙ্গি আক্রান্তদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে আমরা দুর্বলতা কাটিয়ে উঠতে পেরেছি। এখানে জ্বর-ডেঙ্গি নিয়ে অনেকেই ভর্তি হচ্ছেন। রোগীরা ভীষণ ভাল চিকিৎসা পাচ্ছেন।’’ 

অজয় বলেন, ‘‘এ বার আমরা নজরদারিতে জোর দিয়েছি। নিয়মিত হাসপাতালগুলো পরিদর্শন করা হচ্ছে।’’ স্বাস্থ্য অধিকর্তার দাবি,  চর্তুরদিকে এডিস মশা ঘুরে বেড়াচ্ছে। ফলে ডেঙ্গি হবেই। আমাদের কাজ ডেঙ্গিতে মৃত্যু প্রতিরোধ করা। কারণ ডেঙ্গি আক্রান্ত রোগীর চট করে শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। এখন ডেঙ্গি আক্রান্তদের দিনে দু’বার করে রক্ত পরীক্ষা করা হচ্ছে। সেই মতো চিকিৎসা করা হচ্ছে রোগীদের।  

স্বাস্থ্য দফতরের তরফে এ বার হাসপাতালের পরিচ্ছন্নতার উপর জোর দেওয়া হয়েছে। বনগাঁ মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের জন্য মশারির ব্যবস্থা করা হয়েছে। 

বনগাঁ মহকুমায় এ বার ইতিমধ্যেই দু’জনের মৃত্যু হয়েছে জ্বর-ডেঙ্গিতে। হাসপাতালে আসা ডেঙ্গি আক্রান্ত রোগীর আত্মীয়দের দাবি, হাসপাতাল চত্বরে জল জমে আছে। তাতে মশার লার্ভা দেখা যাচ্ছে। তাঁদের কথায়, ‘‘ডেঙ্গি আক্রান্ত রোগী হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে নিয়ে এসে আমরাই না ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হয়ে পড়ি।’’ 

স্বাস্থ্য অধিকর্তা হাসপাতাল সুপারকে জমা জল পরিষ্কারের নির্দেশ দিয়েছেন। সুপার বলেন, ‘‘হাসপাতাল চত্বরে থাকা ঝোপ জঙ্গল পরিষ্কার করা হয়েছে। দু-একটি জায়গায় জল জমে আছে। শীঘ্রই তা পরিষ্কার করে গর্ত বুজিয়ে দেওয়া হবে।’’ 

দেগঙ্গার জ্বরে আক্রান্ত এক ব্যক্তিকে হাসপাতালে ভর্তি না করে ওঝার কাছে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। পরে তাঁর মৃত্যুও হয়। ওই বিষয়ে অজয় বলেন, ‘‘ওই ধরনের কুসংস্কার রুখতে প্রচার কর্মসূচিতে জোর দেওয়া হচ্ছে। সকলের কাছে আমার আবেদন জ্বর হলে দ্রুত রক্ত পরীক্ষা করান। হাসপাতালে আসুন।’’  

 শনিবার ডেঙ্গি পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে স্বাস্থ্য দফতরের এক প্রতিনিধি দল হাবড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে আসেন। ছিলেন, স্বাস্থ্য দফতরের সহ সচিব শরথকুমার দ্বিবেদী। তাঁরা রোগীদের সঙ্গে কথা বলেন। চিকিৎসা কেমন হচ্ছে, সে সম্পর্কে তাঁরা খোঁজ খবর নেন।