নলকূপ থেকে গ্যাস এবং আগুন বার হওয়ার রহস্য ভেদ করতে রবিবার দেগঙ্গার চাকলা মঞ্জিলহাটি মোল্লাপাড়া পরিদর্শন করল উত্তর ২৪ পরগনা জেলা প্রশাসন এবং ‘অয়েল অ্যান্ড ন্যাচারাল গ্যাস কর্পোরেশন’ এর ছয় সদস্যের প্রতিনিধি দল। এলাকাবাসীদের সঙ্গে কথা বলার পাশাপাশি, নির্গত গ্যাস থেকে কতটা আগুন জ্বলছে তা তাঁরা খতিয়ে দেখেন। একটি নলকূপ থেকে গ্যাসের নমুনা দু’টি কাচের পাত্রে ভরে নিয়ে যান তাঁরা। বড় অগ্নিকাণ্ডের ঝুঁকি থাকায় কল থেকে নির্গত গ্যাসে আগুন না জ্বালতে ওএনজিসির প্রতিনিধি দলের তরফে দিব্যেন্দু মণ্ডল স্থানীয়দের অনুরোধ করেন। তবে পানীয় জলে সমস্যা নেই বলেও সবাইকে আশ্বস্ত করা হয়। এলাকার বাসিন্দা শবনম পরভিন বলেন, ‘‘পানীয় জলের সমস্যা মেটাতে প্রশাসন যদি মাটির নীচে পাতা জলের লাইন চালু করে, তা হলে বহু মানুষ উপকৃত হবেন।’’ এ দিন স্থানীয় মানুষের ক্ষোভের মুখে পড়েন চাকলা পঞ্চায়েতের প্রধান মৌমিতা সাহা। পানীয় জল নেই কেন, ক্ষুব্ধ স্থানীয়েরা সে প্রশ্ন করেন প্রধানকে। বেহাল রাস্তাঘাটের কারণও জানতে চান তাঁরা। উত্তর দিতে না পেরে এলাকা ছাড়েন প্রধান। পরে দেগঙ্গার বিডিও সুব্রত মল্লিক বলেন, ‘‘১৫ দিনের মধ্যে গ্রামের রাস্তাঘাট ও পানীয় জলের সমস্যার সমাধান করা হবে।’’