বিয়েবাড়িতে সবে সেজেগুজে বসেছেন কনে। একে একে আসতে শুরু করেছেন আত্মীয় এবং অভ্যাগতরা। হঠাৎই পরপর বোমার আওয়াজে কেঁপে উঠল বিয়েবাড়ি চত্বর। ডাকাত পড়েছে ভেবে ভয়ে ছোটাছুটি শুরু করে দিলেন নিমন্ত্রিতেরা। সোমবার রাতে এমনই ঘটেছে দেগঙ্গা থানার চাঁপাতলা দিঘির পাড় এলাকায়। পরে খবর পেয়ে পুলিশ আসে। উদ্ধার হয় তাজা বোমাও।

পুলিশ সূত্রে খবর, ওই এলাকায় একটি জমির উপরে ঘর তৈরি হয়েছিল। তা নিয়ে গোলমাল চলছিল দুই গোষ্ঠীতে। সোমবার রাতে সেই ঘর ভাঙতে আসে জনা তিরিশেক দুষ্কৃতী। কিন্তু বাধা পেয়ে তারাই বোমাবাজি করে পালায়। পুলিশ জানিয়েছে, সে সময়ে পাশেই একটি বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠান চলছিল। বোমার শব্দ শুনে ওই বাড়ির লোকজন ভেবেছিলেন, সেখানেই ডাকাত পড়েছে। তাতে আরও বেশি আতঙ্ক ছড়ায়।

যাঁরা ওই ঘর তৈরি করছেন, সেই পরিবারের এক সদস্য মমতাজ বিবি বলেন, ‘‘দিন দশেক হল আমাদের জমিতে নতুন ঘর তৈরি করে রয়েছি। রাতে হঠাৎই কয়েক জন ঘর ভাঙতে আসে। তাদের মুখ ঢাকা ছিল। বাধা দিতে গেলে আমাকে মারধর করা হয়।’’ ওই মহিলার আরও অভিযোগ, ‘‘আমার ছ’মাসের বাচ্চা ভয়ে কাঁদতে শুরু করে। চিৎকার শুনে ছুটে আসেন পড়শিরা। তখনই ওরা বোমা ছুড়তে ছুড়তে পালায়।’’ রাতেই অভিযোগ দায়ের হয় থানায়। তবে মঙ্গলবার পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি বলে জানিয়েছে পুলিশ।