• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

খুনের অভিযোগ

Death
প্রতীকী ছবি

বারাসত পুরসভার কাউন্সিলর প্রদ্যোত ভট্টাচার্য ও তাঁর ভাই প্রণব ভট্টাচার্যের পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যুতে খুনের তদন্ত শুরু করল পুলিশ। গত রবিবার,  হুগলির চণ্ডীতলা থানা এলাকার শিয়াখালা এলাকায় পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় বারাসত পুরসভার তিন নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এবং তাঁর ভাইয়ের। এটি পরিকল্পিত খুন বলে শুক্রবার চণ্ডীতলা থানায় অভিযোগ জানান কাউন্সিলরের স্ত্রী মৌমিতা ভট্টাচার্য। পাশাপাশি তাঁর এ-ও দাবি, খুনের ষড়যন্ত্রে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ ভাবে জড়িত দুর্ঘটনাগ্রস্ত গাড়িটির চালক বারাসতেরই বাসিন্দা দেবকুমার দে।

শনিবার পুলিশ জানিয়েছে, অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু হয়েছে। সমস্ত তথ্যপ্রমাণ, ময়না-তদন্ত ও ফরেন্সিক রিপোর্ট খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তদন্তকারীদের দাবি, প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, যে গাড়িতে কাউন্সিলর যাচ্ছিলেন সেটি রাস্তার ধারে দাঁড়ানো একটি ট্রাক্টরে ধাক্কা মেরে সেঁধিয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় পিছনে এবং সামনের আসনে বসা দুই ভাইয়ের। গাড়িও দুমড়ে-মুচড়ে যায়।কিন্তু অক্ষত থেকে যান দেবকুমার। অভিযোগে সেই বিষয়ের উল্লেখ করেছেন মৌমিতা।

তবে কী কারণে তাঁর স্বামী এবং দেওর খুন হয়ে থাকতে পারেন, তা অভিযোগে জানাতে পারেননি মৌমিতা। বারাসত পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান, তৃণমূল নেতা অশনি মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে গিয়ে এই অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। কেন এত দিন পরে অভিযোগ করা হচ্ছে, সে বিষয়ে মৌমিতা জানান, পারলৌকিক কাজের জন্য এর আগে অভিযোগ জানাতে আসতে পারেননি।

অশনিবাবু এ দিন বলেন, ‘‘কী ভাবে দু’জনের মৃত্যু হল তা জানতেই তদন্তের দাবি করেছি।’’ পুলিশ সূত্রের খবর, চালককে জেরা করা হচ্ছে। দুর্ঘটনার পরেই চালকের বিরুদ্ধে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানো এবং অনিচ্ছাকৃত ভাবে মৃত্যু ঘটানোর দায়ে ৪টি ধারায় অভিযোগ আনে পুলিশ। তদন্তে খুন প্রমাণিত হলে সেই ধারাও যুক্ত করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন