দলীয় ঝান্ডা টাঙানো নিয়ে তৃণমূল-বিজেপির মারামারিতে গুরুতর জখম হন দু’পক্ষের চারজন। শুক্রবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে ক্যানিংয়ের গোলাবাড়ির বৈকুন্ঠপুরে। পুলিশ জানিয়েছে, অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু হয়েছে। কেউ গ্রেফতার হয়নি।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রের খবর, এ দিন রাতে ওই এলাকায় দু’দলই তাদের দলীয় ঝান্ডা টাঙাচ্ছিল। এ নিয়ে একে অন্যকে কটূক্তি করে বলে অভিযোগ। তা নিয়ে মারামারি বেধে যায়। তৃণমূল কর্মী পান্না নস্করের মাথা ফাটে। জখম হন বিজেপি কর্মী যাদব মণ্ডল। স্থানীয় লোকজন আহতদের ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যান।

ক্যানিংয়ের গোপালপুর এলাকার বিজেপির মণ্ডল সভাপতি ভাগীরথ নস্কর বলেন, ‘‘আমাদের কর্মীরা ওই এলাকায় বসেছিলেন। সে সময়ে তৃণমূলের লোকজন তাঁদের উপরে চড়াও হয়ে মারধর করে। এই ঘটনায় আমাদের কয়েকজন জখম হয়েছেন।’’

অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে ক্যানিং ১ ব্লক তৃণমূলের সভাপতি শৈবাল লাহিড়ি বলেন, ‘‘ওই এলাকায় আমাদের কর্মীরা দলীয় ঝান্ডা লাগাচ্ছিলেন। তা নিয়ে ওরা কটূক্তি করতে থাকে। প্রতিবাদ করলে ওরা আমাদের কর্মীদের উপরেই চড়াও হয়ে মারধর করে।’’

অন্য দিকে, বৃহস্পতিবার রাতে বাসন্তীর ঝড়খালির বালিখাল এলাকায় বিজেপি-তৃণমূল বচসাকে কেন্দ্র করে হাতাহাতি বেধে যায়। কয়েকজন বিজেপি কর্মী-সমর্থক জখম হন বলে অভিযোগ। শুক্রবার রাতে বিজেপির পক্ষ থেকে ঝড়খালি কোস্টাল থানায় অভিযোগ জানানো হয়। ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করেেছ।