• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

জাপানি এনসেফ্যালাইটিস রুখতে টিকাকরণ

Vaccination
চলছে-কর্মসূচি: ভাঙড়ে। ছবি: সামসুল হুদা

Advertisement

জাপানি এনসেফ্যালাইটিস রোগের হাত থেকে রক্ষা পেতে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ দফতরের নির্দেশে বিশেষ টিকাকরণ কর্মসূচি নিয়েছে ভাঙড় ২ ব্লক প্রশাসন ও ব্লক স্বাস্থ্য দফতর। জেলার মধ্যে ভাঙড় ২ ব্লককে বেছে নেওয়া হয়েছে ‘পাইলট প্রোজেক্ট’ হিসেবে।

গত এক বছরে ভাঙড় ২ ব্লক এলাকার বেঁওতা অঞ্চলে ২ জনের এবং ভোগালি অঞ্চলে ১ জনের শরীরে রক্ত পরীক্ষায় জাপানি এনসেফ্যালাইটিস ধরা পড়ে। তারপরেই নড়েচড়ে বসে স্বাস্থ্য দফতর। শুধু ভাঙড় ২ ব্লক নয়, রাজ্যের ৮টি জেলায় ভাইরাসঘটিত এই মারণ রোগের প্রকোপ দেখা যায়। তাই আগাম সর্তকতা হিসেবে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর পাইলট প্রোজেক্ট হিসাবে বিশেষ টিকাকরণ কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

নভেম্বর-ডিসেম্বর এই দু’মাস ধরে ব্লকের ১০টি পঞ্চায়েত এলাকায় টিকাকরণ কর্মসূচি চলবে। এ জন্য ভাঙড়ের প্রতিটি স্বাস্থ্য কেন্দ্র, উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র এবং নির্দিষ্ট কিছু অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রে টিকাকরণ কর্মসূচি শুরু হয়েছে। ১৫-৬৫ বছরের সব মানুষ যাতে এই টিকাকরণের আওতায় আসেন, সে জন্য স্বাস্থ্যকর্মীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে সচেতন করছেন। মাইকে প্রচার চলছে। প্রতিটি পাড়ায়, বাজারে লিফলেট-পোস্টার দিয়ে প্রচার চলছে।ভাঙড় ২ বিডিও কৌশিককুমার মাইতি বলেন, ‘‘ব্লক এলাকায় ১ লক্ষ ৭৩ হাজার ৯০০ জন মানুষকে টিকাকরণ কর্মসূচির আওতায় আনার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে। ব্লক এলাকায় কোনও মানুষ যাতে এই রোগে আক্রান্ত না হন, সে জন্য আগাম সর্তকতা হিসেবেই এই কর্মসূচি।

স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, জাপানি এনসেফ্যালাইটিস রোগে মৃত্যুর হার ২০-৫০ শতাংশ।আবার অনেক ক্ষেত্রে মানুষ এই রোগে ৫০ শতাংশ সুস্থ হওয়ার পরেও পঙ্গুত্ব ও স্নায়ুবিক সমস্যা হতে পারে। এ রোগ সাধারণত ছড়ায় কোনও এডিস মশা যদি জাপানি এনসেফ্যালাইটিস রোগাক্রান্ত শূয়োর বা পাখিকে কামড়ায়। ওই মশা নিজে রোগের বাহক হয়ে যায়। তারপরে সেই মশা কাউকে কামড়াযলে মানুষও ওই রোগে আক্রান্ত হন। মাথাব্যথা, জ্বর, বমি, পেশিতে ব্যথা, খিঁচুনির মতো উপসর্গ দেখা যায়। টিকা নেওয়া থাকলে রোগের হাত থেকে বাঁচার সম্ভাবনা বাড়ে। 

জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক সোমনাথ মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‘জাপানি এনসেফ্যালাইটিসের মতো মারণ রোগের সতর্কতা হিসেবে এবং রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের নির্দেশে ভাঙড় ২ ব্লককে পাইলট প্রোজেক্ট হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে। আগামী দু’মাস ধরে টিকাকরণ কর্মসূচি চলবে।’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন