• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

স্ত্রীই খুনি, জবানবন্দি আজিজুলের

Azizul Mollah
আজিজুল মোল্লা

স্ত্রীর হাতেই শিশুকন্যা ও শাশুড়ি খুন হয়েছেন বলে বিচারকের কাছে জবানবন্দি দিলেন আজিজুল মোল্লা।

মঙ্গলবার দুপুরে মা সায়েরা বেওয়া ও ২২ দিনের মেয়েকে খুনের অভিযোগে বারুইপুর থানার চক্রবর্তী আবাদ গ্রামের বাসিন্দা মুর্শিদা বিবিকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রের খবর, মুর্শিদা মেয়েকে গলা টিপে মারতে গেলে বাধা দেন সায়েরা। এর পরেই মাকে দা দিয়ে কুপিয়ে খুন করে মুর্শিদা। তার পরে মেয়েকেও শ্বাসরোধ করে মারে সে। মায়ের দেহ বাড়ির পিছনে পুকুরপাড়ে এবং মেয়ের দেহ কলাবাগানে ফেলে দিয়ে প্রতিবেশীর সেপটিক ট্যাঙ্কে ঢুকে বসেছিল মুর্শিদা।

তদন্তকারীরা দফায় দফায় মুর্শিদা ও তার স্বামী আজিজুলকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। পরে আজিজুলের সামনেই মুর্শিদা মা ও মেয়েকে খুনের কথা স্বীকার করে। তদন্তকারীদের কথায়, মুর্শিদার স্বীকারোক্তির সময়ে পুলিশ ছাড়া এক মাত্র তার স্বামীই উপস্থিত ছিলেন। তাই আজিজুলও অন্যতম সাক্ষী। বুধবার বিচারকের কাছে সাক্ষ্যে আজিজুল জানান, তাঁর স্ত্রী-ই খুন করেছে। এ দিন বারুইপুর আদালতে বিচারকের কাছে তিনি সমস্ত বিষয়টি জানিয়েছেন বলে দাবি আজিজুলের।

বুধবার মুর্শিদাকে বারুইপুর মহকুমা আদালতে হাজির করা হলে চার দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। পুলিশের দাবি, ঠান্ডা মাথায় পরিকল্পিত ভাবে দু’টি খুন করার পরে প্রমাণ লোপাটের চেষ্টা করেছিল মুর্শিদা। পুলিশি হেফাজতে তাকে ফের জেরা করা হবে। খুনের পিছনে ষড়যন্ত্র রয়েছে কি না, খতিয়ে দেখা হবে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন