• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যু মা-ছেলের, ধৃত চার

sonali
সপরিবার: সোনালিরা

অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যু হল এক মহিলা ও তার চার বছরের শিশুপুত্রের। শনিবার ঘটনাটি ঘটেছে হাবড়ার বাণীপুর ইতনা কলোনি এলাকায়। পুলিশ জানিয়েছে, মৃতদের নাম সোনালি পাল (২৬) ও দেবাংশু পাল (৪)। ওই ঘটনায় সোনালির বাবা জগন্নাথ কুণ্ডু থানায় জামাই-সহ মেয়ের শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ দায়ের করেছেন। পুলিশ সোনালির স্বামী গোবিন্দ, ভাসুর তারক, দুই জা টুম্পা এবং কাঞ্চনাকে গ্রেফতার করেছে। ধৃতদের বিরুদ্ধে      খুনের মামলা রুজু করে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। ধৃতদের রবিবার বারাসত জেলা আদালতে তোলা হয়।

বিচারক গোবিন্দকে পুলিশি হেফাজতে এবং বাকিদের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বছর পাঁচেক আগে ইতনা কলোনি এলাকার বাসিন্দা গোবিন্দর সঙ্গে বিয়ে হয় আয়রা এলাকার সোনালির। বিয়ের পর থেকে সাংসারিক অশান্তি শুরু হয়। অভিযোগ, বিয়ের পর থেকে সোনালির শ্বশুরবাড়ির লোকজন আরও বেশি পণের দাবিতে তাঁর উপরে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করত।

পুলিশ জানিয়েছে, গোবিন্দ নিরাপত্তা রক্ষীর কাজ করে। লকডাউনের জেরে এখন কাজকর্ম বন্ধ। শনিবার দুপুরে রান্না খাওয়া নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে অশান্তি বাধে। এরপরই অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় পাড়া-প্রতিবেশীরা সোনালি এবং দেবাংশুকে উদ্ধার করে হাবড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। তাঁদের শরীরের বেশির ভাগ অংশই পুড়ে গিয়েছিল।  শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় মা ও ছেলেকে বারাসত জেলা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। সেখান থেকে দেবাংশুকে আরজিকরে  পাঠানো হয়। শনিবার রাতে বারাসত হাসপাতালে মৃত্যু হয় সোনালির এবং আরজিকর হাসপাতালে মৃত্যু হয় দেবাংশুর।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন