• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

করোনায় আক্রান্ত নন দুই বৃদ্ধ, স্বস্তি

bard
প্রতীকী ছবি

‘কোভিড হাসপাতালে’ দুই বৃদ্ধকে স্থানান্তরিত করার পরে, চিন্তা বেড়েছিল দুর্গাপুরের। কিন্তু মঙ্গলবার সন্ধ্যায় প্রশাসন জানায়, ফের নমুনা পরীক্ষার পরে করোনা-রিপোর্ট ‘নেগেটিভ’ এসেছে। তার পরে বুধবার সকালে কলকাতার আরজি কর হাসপাতালের ল্যাবরেটরি থেকেও ওই দুই বৃদ্ধের লালারসের নমুনাপরীক্ষার ‘নেগেটিভ’ এসেছে বলে প্রশাসন জানায়।

রবিবার দুপুরে দুর্গাপুরের ডিএসপি টাউনশিপের এ এবং বি জ়োনের বাসিন্দা ওই দুই বৃদ্ধকে ‘কোভিড হাসপাতাল’-এ স্থানান্তর করার পরে এলাকা জীবাণুমুক্ত করা, এলাকায় পুলিশ 'পিকেট' বসানো, দুই পরিবারের সদস্যদের ডিএসপি-র ইঞ্জিনিয়ার্স হস্টেলে ‘কোয়রান্টিন’-এ রাখা-সহ নানা পদক্ষেপ করে প্রশাসন। মঙ্গলবার এলাকায় বাঁশের বেড়াও দেওয়া হয়। প্রশাসন জানায়, ২১ দিন পাড়ার বাসিন্দারা ‘হোম কোয়েরান্টিন’-এ থাকবেন।

প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, ওই দুই বৃদ্ধের কলকাতার একটি বেসরকারি ল্যাবরেটরিতে নমুনা পরীক্ষার পরে করোনা রিপোর্ট ‘পজ়িটিভ’ এসেছিল। প্রশাসন যদিও জানিয়েছিল, সরকারি ল্যাবরেটরিতে পরীক্ষা করে যদি একই রিপোর্ট আসে তা হলেই তাঁদের করোনা-আক্রান্ত বলা যাবে। অন্যথায় নয়।

কিন্তু মঙ্গলবার সন্ধ্যায় করোনা চিকিৎসার জন্য নির্দিষ্ট কাঁকসার মলানদিঘির বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে ফের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট ‘নেগেটিভ’ এলে পরিস্থিতি বদলাতে শুরু করে। এ দিন আরজি করের পরীক্ষাতেও রিপোর্ট ‘নেগেটিভ’ আসে।

এর পরে পাড়ায় পুলিশের উপস্থিতি দেখা যায়নি। পরে মহকুমাশাসকের (দুর্গাপুর) নির্দেশে দুই বৃদ্ধের পরিবারের সদস্যেরা বাড়ি চলে যান। পাড়া ঘিরে রাখা বাঁশের বেড়াও সরানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে এ দিন। মহকুমাশাসক (দুর্গাপুর) অনির্বাণ কোলে বলেন, ‘‘ওই পরিবারগুলির সদস্যদের নির্দিষ্ট স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। শারীরিক সমস্যা হলে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালের সুপারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।’’

প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, ওই দুই বৃদ্ধকে যেখানে থেকে কাঁকসার মলানদিঘির কোভিড হাসপাতালে আনা হয়েছিল, তাঁদের সেই দুর্গাপুরের গাঁধী মোড়ের বেসরকারি হাসপাতালে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

এ দিকে, ওই দুই বৃদ্ধ করোনা-আক্রান্ত নন জেনে স্বস্তি ফিরেছে দু'জনের পাড়াতেও। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক বাসিন্দা বলেন, "আপাতত চিন্তামুক্ত হওয়া গেল। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন