কয়েকদিন ধরেই বাড়িতে, আশপাশে বিষধর সাপের দেখা পাচ্ছিলেন তাঁরা। আতঙ্কে ছেলেমেয়েদের রাতে পড়শি বাড়িতে শুতে পাঠাতেন। সোমবার কালনার শিকারপুরের গ্রামের ওই মাটির ভেঙে বেরোল ৩৫টি সাপ। ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে এলাকায়। সাপগুলিকে অবশ্য মাটির হাঁড়িতে ভরে কাছাকাছি একটি জলাশয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

রাজমিস্ত্রী দিলদার শা দুই সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করেন ওই তিন কামরার মাটির বাড়িতে। তাঁর দাবি, মাস তিনেক আগে থেকে বাড়ির আশেপাশে গোখরো সাপ দেখতে পান তাঁরা। নিয়মিত বিষধর সাপের দেখা মেলায় আতঙ্ক বাড়ে। সন্দেহ হয়। হয়তো বাড়িতে সাপের বাসা হয়েছে। এ দিন পড়শিরা মিলে ওই বাড়ির দেওয়াল, মেঝে খোঁড়া শুরু করেন। তখনই বেরিয়ে আসে বিভিন্ন আকৃতির ৩৫টি সাপ। পাশের গ্রাম থেকে সাপ ধরায় পারদর্শী এক যুবককে ডেকে আনা হয়। তিনিই সাপগুলি ধরে ছেড়ে দেন একটি জলাশয়ে। আপাতত বাড়ির একটি উঠোনে ত্রিপলের ছাউনি বেঁধে বাস করছে ওই পরিবার।