• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

দুর্গাপুজো নিয়ে ‘ভুয়ো পোস্ট’, ধৃত বিজেপি কর্মী

durga puja
ছবি পিটিআই।

সোশ্যাল মিডিয়ায় দুর্গাপুজো নিয়ে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে এক জনকে গ্রেফতার করেছে পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, ধৃত সুনীল মণ্ডলের বাড়ি মেমারি পুরসভার ছ’নম্বর ওয়ার্ডের কৃষ্ণবাজারে। বৃহস্পতিবার রাতে ওই এলাকা থেকেই তাঁকে ধরে পুলিশ। দুর্গাপুজো নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়ো ও বিভ্রান্তিকর পোস্ট করার অভিযোগে জেলায় এই প্রথম কেউ গ্রেফতার হলেন।

শুক্রবার পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায় বলেন, “ওই যুবক তাঁর ফেসবুক পেজে বিভ্রান্তিকর ও ভুয়ো পোস্ট করেছেন। নির্দিষ্ট ধারায় তাঁর বিরুদ্ধে মামলা রুজু করা হয়েছে।’’ এ দিন ধৃতকে আদালতে তোলা হলে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জেল-হেফাজতে পাঠানো হয়। তবে ধৃত যুবক ওই পোস্টটি তৈরি করেননি বলে পুলিশ জানিয়েছে।

স্থানীয় লোকজনের একাংশের দাবি, ধৃত এলাকায় বিজেপি কর্মী বলে পরিচিত। ‘বিজেপি করার অপরাধেই’ ওই যুবককে ধরা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিজেপির  সাংগঠনিক জেলা সম্পাদক (বর্ধমান সদর) সুনীল গুপ্ত। আদালতে তোলার সময়ে ধৃতেরও দাবি, এক জনের ‘ফেসবুক ওয়াল’ থেকে পোস্টটি কপি করেছিলেন তিনি। ভুল বুঝতে পেরে মুছে দেন। পুলিশের কাছে ভুল স্বীকার করেছেন বলেও, তাঁর দাবি। তিনি বলেন, ‘‘ভুল স্বীকার করেছি। বিজেপি করি বলে জেলে ভরে দিল।’’

মঙ্গলবার নবান্নে পুলিশ দিবসের অনুষ্ঠানে দুর্গাপুজো সংক্রান্ত ভুয়ো খবর ঠেকাতে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার বরাহনগর এবং ঘোলা থেকে দু’জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বুধবার গভীর রাতে লালবাজার সাইবার থানাও দু’জনকে ধরে। বৃহস্পতিবার দুপুরে ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটও এক জনকে গ্রেফতার করেছে। ওই দিন মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘‘দুর্গাপুজোর সময়ে কাউকে রাস্তায় বেরোতে দেওয়া হবে না বলে ভুয়ো খবর ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। বলা হয়েছে, সারা রাত কার্ফু থাকবে। আমি বলি, এরা কোন হরিদাস, অর্ধশিক্ষিত? দুর্গাপুজো নিয়ে যারা বড় বড় কথা বলছে এবং ঝামেলা পাকানোর চেষ্টা করছে, তারা রেহাই পাবে না।’’ ওই নির্দেশের পরেই পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ সব থানাকে কড়া নজর রাখার নির্দেশ দেয়।

পুলিশ জানিয়েছে, মেমারির যুবক যে পোস্টটি ছড়িয়েছেন, তাতে দাবি করা হয়েছে, ‘দুর্গাপুজোয় সরকারি নির্দেশে প্যান্ডেল বন্ধ’। এর পরেই নিজেকে মেমারি শহর যুব তৃণমূলের সভাপতি দাবি করে সৌরভ সাঁতরা মেমারি থানায় অভিযোগ করেন, দুর্গাপুজো সংক্রান্ত ভুয়ো পোস্ট করার পাশাপাশি, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি, ‘বাংলার গর্ব মমতা’ লোগো ব্যবহার করে ধৃত সোশ্যাল মিডিয়ায় আরও একটি ভুয়ো পোস্ট করেছেন। পুলিশ জানিয়েছে, রাস্তা সংক্রান্ত ওই পোস্টটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরে বেড়াচ্ছে। এ দিন সৌরভবাবু বলেন, “পোস্টের স্ক্রিন শট –সহ থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।’’ এ দিন ধৃতের বাবা নরেশ দাস দাবি করেন, ‘‘ছেলে ভুল করে পোস্ট করেছিল। মুছে দিয়েছে। ভুল স্বীকারও করে নিয়েছে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন