• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সম্পর্ক ভাঙায় খুন কিশোরীকে

Blood

তার সঙ্গে সম্পর্ক রাখতে না চাওয়ায় ‘প্রেমিকা’কে খুন করেছে সে, কিশোরী খুনে ধৃত যুবক জেরায় এ কথাই জানিয়েছে বলে দাবি করল পুলিশ। রানিগঞ্জে ১০ জুন ওই কিশোরীর দেহ উদ্ধারের পরে মোবাইল ফোনের কললিস্ট পরীক্ষা করে বুধবার রাতে বীরভূমের দুবরাজপুর থেকে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রানিগঞ্জের গির্জাপাড়ার বাসিন্দা অঞ্জু যাদব (১৭) কয়েকটি বাড়িতে পরিচারিকার কাজ করত। তাঁর মা নারায়ণীদেবী জানান, ৯ জুন সন্ধ্যায় মেয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আর ফেরেনি। পর দিন রেলমাঠ লাগোয়া জায়গা থেকে দেহ উদ্ধার হয়। উপযুক্ত তদন্তের দাবিতে ৬০ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি। সম্প্রতি সিপিএমের নেতৃত্বে দোষীকে দ্রুত খুঁজে বের করার দাবিতে এলাকায় মোমবাতি মিছিলও হয়। এর পরেই দুবরাজপুর থেকে প্রদীপ বাগদি নামে ওই যুবককে ধরে পুলিশ।

পুলিশের দাবি, জেরায় ধৃত তাদের কাছে জানিয়েছে, অঞ্জুর মামারবাড়ি তাদের গ্রামে। সেখানেই তাদের আলাপ হয়েছিল। তার পরে সম্পর্ক গ়়ড়ে ওঠে। বেশ কয়েক বার সে রানিগঞ্জে অঞ্জুর বাড়িতেও এসেছে। বছরখানেক আগে প্রদীপ বেঙ্গালুরুতে ফুলের ব্যবসা করতে চলে যায়। তদন্তকারীরা দাবি করেন, প্রদীপ তাঁদের জানিয়েছে, সম্প্রতি সে জানতে পারে, অঞ্জুর সঙ্গে অন্য কারও সম্পর্ক তৈরি হয়েছে। তার পরেই সে ফিরে এসে ৯ জুন রেলমাঠের পাশে অঞ্জুর সঙ্গে দেখা করে। অঞ্জু তার সঙ্গে সম্পর্ক রাখতে না চাওয়ার কথা জানালে গলায় ওড়না জড়িয়ে শ্বাসরোধ করে সে তাকে খুন করে বলে প্রদীপ জানিয়েছে, দাবি পুলিশের।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অঞ্জুর মোবাইল ফোনটির খোঁজ মেলেনি। তবে সংশ্লিষ্ট সংস্থার সহায়তায় ফোনের কললিস্ট পায় পুলিশ। তার সূত্র ধরেই প্রদীপের হদিস মেলে। নিহত কিশোরীর মা বলেন, ‘‘প্রদীপ এমন কাণ্ড ঘটিয়েছে, ভাবতেই পারছি না! ওর কঠোর শাস্তি চাই।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন