দিন তিনেক আগে বর্ধমান পুরসভার দেওয়ালে সাঁটানো দুটি পোস্টার নিয়ে বিতর্ক ছড়ায়। এক মহিলাকে অসম্মানজনক কথা ও তাঁর সঙ্গে পুরসভার প্রাক্তন এক কাউন্সিলরকে জড়িয়েও আপত্তিকর কথা ছিল তাতে। পরে পোস্টারদুটি ছিঁড়ে ফেলা হলেও তার ছবি ‘ভাইরাল’ হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। বৃহস্পতিবার ঘটনার তদন্তে নেমেছে জেলা পুলিশ। পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায় বলেন, “এ ব্যাপারে আমরা তদন্ত শুরু করেছি। কে বা কারা পোস্টারটি মারল তা জানার চেষ্টা করা হচ্ছে।’’

গত ১৫ জুলাই সকালে বর্ধমান পুরসভার দেওয়ালে (স্পন্দন মাঠের গেটের সামনে) সাদা কাগজের উপর লাল কালিতে লেখা পোস্টারদুটি দেখা যায়। এক মহিলার ছবিও ছিল তাতে। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, মিনিট পনেরোর মধ্যে এক সাইকেল আরোহী এসে পোস্টারদুটি ছিঁড়ে নিয়ে চলে যায়। ততক্ষণে অবশ্য পথচলতি মানুষের মোবাইলে বন্দি হয় পোস্টারের ছবি। জেলা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ছবি ছড়িয়ে পড়ার খবর আসতেই পুলিশ সুপার স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। বর্ধমান থানা ও জেলা সাইবার ক্রাইম থানাকে একসঙ্গে তদন্ত করে দেখতে বলেছেন তিনি।

জানা গিয়েছে, ওই দিনের পর থেকে কাজে যাননি বর্ধমান পুরসভার কর্মী ওই মহিলা। মোবাইল বন্ধ থাকায় তাঁর সঙ্গে যোগাযোগও করা যায়নি। প্রাক্তন ওই কাউন্সিলরেরও দাবি, ‘‘আমি কোনও অভিযোগ করিনি। পুলিশ কী করছে বলতে পারব না।’’ পোস্টারের শেষে আরও এক মহিলার নাম ও নম্বর দিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য লেখা ছিল। সেই নম্বরে যোগাযোগ করলে বলা হয়, ‘নম্বরটি বৈধ নয়’।