• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘দিদিকে বলো’য় আইএনটিটিইউসি

communication
ডিএসপি-তে জনসংযোগে নেতা-কর্মীরা। বৃহস্পতিবার। নিজস্ব চিত্র

Advertisement

রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার বিলগ্নিকরণ বন্ধ ও নতুন শিল্পের দাবিতে ‘লং মার্চ’ করছে সিটু এবং আইএনটিইউসি। দুর্গাপুরে বন্ধ কল-কারখানা এলাকা দিয়ে যাওয়ার সময়ে সেই পদযাত্রাকে স্বাগত জানাতে দেখা গিয়েছে বহু মানুষকে। অন্য নানা সংগঠন এ ভাবে পথে নামলেও তৃণমূল প্রভাবিত শ্রমিক সংগঠন আইএনটিটিইউসি-র তরফে বেশ কিছু দিন ধরেই কোনও কর্মসূচি নেওয়া হচ্ছে না, উঠছিল এমন অভিযোগ। এই পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচিতে শামিল হল তারা।

লোকসভা ভোটে দুর্গাপুরে তৃণমূলের শোচনীয় ফলাফলের পরে আইএনটিটিইউসি-র ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। সংগঠনেরই একাংশের অভিযোগ, শ্রমিক-স্বার্থে সে ভাবে সরব না হওয়ায় শিল্পাঞ্চলে অনেকেই আইএনটিটিইউসি-র উপরে ভরসা হারিয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে সিটু, আইএনটিইউসি-র লং মার্চে শহরে সাড়া দেখে শাসক দলের নেতারা নড়েচড়ে বসেন, দাবি তৃণমূল সূত্রের।

ডিএসপি-তে শ্রমিকদের সঙ্গে জনসংযোগে বৃহস্পতিবার ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচি নেয় আইএনটিটিইউসি প্রভাবিত ‘দুর্গাপুর ইস্পাত মজদুর ইউনিয়ন’। কারখানার গেটে প্রায় এক হাজার শ্রমিককে ‘দিদিকে বলো’ কার্ড বিলি করা হয়। কার্ডে দেওয়া ফোন নম্বরে শ্রমিকদের কোনও সমস্যা থাকলে তা জানানোর পরামর্শ দেওয়া হয়। ঠিকা শ্রমিকদের অনেকেই সেই কার্ড নেন। শহরের এক তৃণমূল নেতার দাবি, শ্রমিক নেতাদের একাংশের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। তাঁদের বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে অভিযোগ জানানো যাবে, এ কথা ভেবেই উৎসাহ পেয়েছেন শ্রমিকেরা।

তৃণমূলের দুর্গাপুর ১ ব্লকের যুগ্ম আহ্বায়ক তথা দুর্গাপুর ইস্পাত মজদুর ইউনিয়নের নেতা জয়ন্ত রক্ষিত বলেন, ‘‘শ্রমিকদের কোনও অভাব-অভিযোগ থাকলে সরাসরি তাঁরা তা মুখ্যমন্ত্রীকে জানাতে পারবেন। এর ফলে সংগঠনের কাজকর্মে স্বচ্ছতা বজায় থাকবে।’’ সিটু নেতা তথা শহরের প্রাক্তন বিধায়ক বিপ্রেন্দু চক্রবর্তীর প্রতিক্রিয়া, ‘‘আইএনটিটিইউসি-র কে কী করেন, তা সবাই জানেন। সে নিয়ে নতুন করে অভিযোগ করে লাভ কী হবে, তা শ্রমিকেরা বোঝেন।’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন