• কেদারনাথ ভট্টাচার্য
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কালনার সব ওয়ার্ডে প্রার্থী দিতে প্রস্তুতি সিপিএমের

CPM
প্রতীকী ছবি।

সম্প্রতি দলের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র বর্ধমানে এক কর্মসূচিতে এসে জানিয়েছিলেন, তৃণমূল-বিজেপি বিরোধী ভোট সর্বোচ্চ পর্যায়ে এক করাই তাঁদের লক্ষ্য। সে জন্য কংগ্রেসের সঙ্গে আসন সমঝোতা করে ভোটে লড়তে চান তাঁরা। কিন্তু কালনায় আপাতত সব ওয়ার্ডেই দলের তরফে প্রার্থী দেওয়ার প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে বলে দাবি সিপিএমের। দলের স্থানীয় নেতাদের দাবি, আসন সমঝোতা না করে লড়াইয়ে নামলে ভাল ফল মিলবে। 

কালনার ১৮টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১২টিতে জিতে গত বার বোর্ড গড়ে তৃণমূল। বাকি ছ’টি আসনে জয়ী হয় সিপিএম। পরে সিপিএমের এক কাউন্সিলর তৃণমূলে যোগ দেন। সিপিএম সূত্রের দাবি, দলের নিচুতলার কর্মীরা চান, সব ওয়ার্ডের দলের প্রার্থীরা লড়াইয়ে নামুন। সে জন্য এখনও ভোট ঘোষণা না হলেও দলের প্রতিটি ওয়ার্ড কমিটি প্রার্থীর নাম স্থির করে ফেলেছে। কর্মীরা প্রচারের জন্য দেওয়াল-দখলও শুরু করে দিয়েছেন। তবে প্রার্থীর নাম এখনই না লিখে শুধু দলের প্রতীক এঁকে রাখা হচ্ছে।

সব ওয়ার্ডে নিজেদের প্রার্থী দেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে কেন? কালনার সিপিএম নেতাদের দাবি, এক সময়ে শহরে কংগ্রেসের ভাল ভোটব্যাঙ্ক থাকলেও এখন তা তলানিতে ঠেকেছে। আসন সমঝোতা হলে ভোটারদের একাংশ মুখ ফেরাতে পারেন। সে কারণেই সব আসনে লড়াইয়ের প্রস্তুতি রাখা হচ্ছে বলে দাবি করেন এক নেতা। সিপিএমের কালনা শহর এরিয়া কমিটির সম্পাদক গৌরাঙ্গ গোস্বামী বলেন, ‘‘জোট নিয়ে আলোচনা স্থানীয় স্তরে হয় না। উচ্চ স্তরে এখনও বিষয়টি নিয়ে সিদ্ধান্ত হয়নি। পরে পরিস্থিতি দেখে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’’ 

পুরভোটের জন্য কালনা শহর কংগ্রেস ইতিমধ্যে ১২ জনের কমিটি গড়েছে। সেই কমিটির সভাপতি গোপাল সাহা বলেন, ‘‘আমরা আগ বাড়িয়ে কিছু করতে যাব না। প্রদেশ নেতৃত্ব জোট করার নির্দেশ দিলে আলোচনায় বসব। আলোচনা ফলপ্রসূ হলে আসন সমঝোতা হবে। তা না হলে হবে না।’’

গত লোকসভা ভোটের নিরিখে, শহরের ১৮টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১২টিতে এগিয়েছিল বিজেপি। বাকি ছ’টিতে তৃণমূল। সিপিএমের ভোটব্যাঙ্কে বড় ধস নামে। সিপিএম নেতৃত্বের অবশ্য দাবি, লোকসভা ও পুরসভা নির্বাচন সম্পূর্ণ আলাদা বিষয়। পুরভোটে দল অনেকটাই ভাল ফল করবে বলে আশা তাঁদের। 

কালনার পুরপ্রধান তৃণমূলের দেবপ্রসাদ বাগের প্রতিক্রিয়া, ‘‘সিপিএম-কংগ্রেসের আসন সমঝোতা হওয়া বা না হওয়া নিয়ে আমাদের কোনও মাথাব্যথা নেই। উন্নয়নকে সামনে রেখে সব ওয়ার্ডে জেতাই আমাদের লক্ষ্য।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন