সরস্বতী পুজো মানেই মাইক, বক্সের দাপট। তা নিয়ন্ত্রণে আনতে হিমশিম প্রশাসন। এই ছবিটাই দেখা যেত এত দিন। তবে মাধ্যমিক পরীক্ষার সৌজন্যে এ বার সেই দাপট অনেকটাই কম। আজ, মঙ্গলবার থেকে শুরু হচ্ছে মাধ্যমিক। দু’একটি বিক্ষিপ্ত ঘটনা ছাড়া সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত শব্দ-তাণ্ডবের কোনও অভিযোগ ওঠেনি জেলায়, দাবি পুলিশ-প্রশাসনের। যদিও পুজো উপলক্ষে কিছু উদ্যোক্তা সাউন্ডবক্স বাজিয়ে অনুষ্ঠান করেছে, দাবি কয়েকটি এলাকার বাসিন্দাদের।

প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, মাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য প্রশাসনের তরফে কোনও পুজো কমিটিকে মাইক বাজানোর অনুমতি দেওয়া হয়নি। পুলিশের তরফে প্রতি বারই কম আওয়াজে মাইক বাজানোর আবেদন রাখা হয়। কিন্তু অধিকাংশ পুজো কমিটিই তা কানে তোলে না। মাইকের শব্দে নাজেহাল হতে হয় বলে অভিযোগ করেন বাসিন্দারা। এ বার লাউডস্পিকার ব্যবহারের অনুমতি দেওয়াই হয়নি।

তবে তা সত্ত্বেও রবিবার সকালে দুর্গাপুরের ৫৪ ফুট এলাকার সারদাপল্লি এলাকায় একটি ক্লাবের পুজোয় মাইক বাজানোর অভিযোগ ওঠে। স্থানীয় কিছু বাসিন্দার কাছে অভিযোগ পেয়ে পুলিশ এলাকার একটি বহুতলের ছাদে লাগানো মাইক খুলে দেয়। সে দিন বিভিন্ন জায়গায় পুলিশের গাড়ি শব্দবিধি মানা হচ্ছে কি না সে বিষয়ে নজর রাখতে টহল দেয় বলে প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে। সন্ধ্যায় বেশ কিছু পুজো কমিটি প্রতিমা নিরঞ্জন সেরে ফেলে। সোমবার সন্ধ্যায় ৫৪ ফুট এলাকায় সাউন্ডবক্স বাজিয়ে অনুষ্ঠানের অভিযোগ ওঠে। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, তা বন্ধ করা হয়েছে।

শহরে সরস্বতী পুজোর সংখ্যা প্রায় অগুণতি। এক-একটি পাড়ায় অনেকগুলি করে পুজো। সব পুজো মণ্ডপেই সাউন্ডবক্সের ব্যবস্থা ছিল। সোমবার সন্ধ্যায় বিভিন্ন পুজো মণ্ডপে গিয়ে দেখা গিয়েছে, নানা সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা চলছে। সাউন্ডবক্সে ঘোষকের ঘোষণা শোনা গিয়েছে। মাঝে-মাঝে গান। তবে তা নিচু আওয়াজে হওয়ায় পরীক্ষার্থীদের বিশেষ সমস্যায় পড়তে হয়নি বলে দাবি উদ্যোক্তাদের। যদিও এলাকাবাসীর অনেকের মতে, এটুকুও না হলে ভাল হত।

ডিএসপি টাউনশিপের মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী মনোজকুমার সিংহের কথায়, ‘‘মাঝে-মাঝে গান ভেসে আসছে। তাতে মনসংযোগে ব্যাঘাত তো খানিক হচ্ছেই।’’ রাতে কিছু জায়গায় সাউন্ডবক্সের শব্দ বেড়ে যায়। দু’এক জায়গায় ডিজে বক্স ব্যবহারেরও অভিযোগ ওঠে। তবে পুলিশের দাবি, খবর পেলেই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

আসানসোলে শনিবারই কিছু পুজো মণ্ডপে সাউন্ড বক্স বাজানোর অভিযোগ ওঠে। পুলিশের দাবি, উদ্যোক্তাদের রবিবার থেকে সাউন্ডবক্স ব্যবহার বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এডিসিপি (পশ্চিম) অনমিত্র দাস জানান, উচ্চস্বরে মাইক বা লাউডস্পিকার বাজানোর অভিযোগ মেলেনি। এ বার মাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য অনুষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন অনেক পুজো উদ্যোক্তাও।