যাত্রী তোলাকে কেন্দ্র করে অটো ও টোটো চালকদের মধ্যে অশান্তির জেরে শুক্রবার দুপুরে উত্তেজনা ছড়াল দুর্গাপুরের সিটি সেন্টার বাসস্ট্যান্ড এলাকায়। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনার জেরে ব্যাহত হয় অটো ও টোটো চলাচল। বিপাকে পড়েন যাত্রীরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় অশান্তির সূত্রপাত। টোটো চালকেরা জানান, তাঁদেরই এক জন মৌলানা আজাদ রোড এলাকা থেকে দু’জন যাত্রীকে নিয়ে ‘রিজার্ভ’ যাচ্ছিলেন। অভিযোগ, পথে ওই টোটোকে আটকান এক অটোচালক। তা নিয়ে দুই চালকের মধ্যে বচসা হলেও তখনকার মতো তা মিটেও যায়। শুক্রবার সকালে ওই টোটো চালক রোজকার মতো সিটি সেন্টারের একটি শপিং মলের সামনে টোটো নিয়ে যাত্রীর জন্য অপেক্ষা করছিলেন। অভিযোগ, তাঁকে সেই অটো চালক-সহ আরও কয়েক জন বাসস্ট্যান্ডে তুলে নিয়ে গিয়ে মারধর করেন। খবর পেয়ে টোটো চালকেরা বাসস্ট্যান্ডে গেলে তাঁদেরও অটো চালকেরা মারধর করেন বলে অভিযোগ।

বিবাদ মেটাতে অটো ও টোটো চালককে ফাঁড়িতে নিয়ে যায় পুলিশ। আইএনটিটিইউসি প্রভাবিত টোটো চালক সংগঠনের নেতা অশোক বড়ুয়া বলেন, ‘‘আমরা অশান্তি চাই না। তাই টোটো চালকদের নিয়ে আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টি মেটাতে গিয়েছিলাম সিটি সেন্টার বাসস্ট্যান্ডে। তখন বচসার মাঝে লাঠি, বাঁশ, রড নিয়ে অটো চালকেরা আমাদের উপরে চড়াও হন। মাথা ফাটে অভিজিৎ দাস নামে এক টোটো চালকের। তাঁকে নার্সিংহোমে ভর্তি করানো হয়েছে।’’ অশান্তির খবর পেয়ে পুলিশ সিটি সেন্টার বাসস্ট্যান্ডে এসে দু’পক্ষকেই হটিয়ে দেয়।

অটো চালকদের অভিযোগ, তাঁদের রুটেই টোটো চলাচল করে। ফলে যাত্রী মেলে না। বারবার অশান্তিও হচ্ছে। এ দিনও ঘটনার সময়ে এক টোটো চালক বাসস্ট্যান্ডে এসে অটো স্ট্যান্ড থেকে যাত্রী তোলার চেষ্টা করেন বলে অভিযোগ। প্রতিবাদ করতেই টোটো চালকদের সঙ্গে অশান্তি বাধে। মাথায় চোট পান উত্তম প্রধান নামে এক অটো চালক। ঘটনার জেরে এ দিন যাত্রী পরিবহণ ব্যাহত হয়।

পুলিশ জানায়, ঘটনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।