• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কালনায় বৈঠক জেলা তৃণমূলের

বুথ-স্তরে জোর নতুন কমিটির

TMC
প্রতীকী ছবি

সংগঠনে রদবদলের পরে পূর্ব বর্ধমান জেলা তৃণমূলের প্রথম বৈঠক হল কালনার বুলবুলিতলায়। দলের জেলা কমিটিতে নতুন কয়েকজনের সংযুক্তির পরে আয়োজিত এই বৈঠকে নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে বেশ কয়েকটি বার্তা দেওয়া হয়েছে বলে তৃণমূল সূত্রে জানা গিয়েছে। 

তৃণমূল সূত্রে জানা যায়, করোনা সংক্রমণের জেরে বর্ধমান শহরের নানা এলাকা গণ্ডিবদ্ধ করেছে প্রশাসন। সে কারণে এ দিন বৈঠকের আয়োজন করা হয় কালনা ১ ব্লকের বুলবুলিতলায়। দলের জেলা কমিটিতে সদ্য নিযুক্ত চেয়ারম্যান মমতাজ সঙ্ঘমিতা, জেলা যুব তৃণমূল সভাপতি রাসবিহারী হালদার এবং দলের নতুন কো-অর্ডিনেটরদের শুভেচ্ছা জানানো হয় নেতৃত্বের তরফে। 

তৃণমূল সূত্রের দাবি, সংগঠন শক্তিশালী করতে কী কী পদক্ষেপ করা হবে, সে নিয়ে এ দিনের বৈঠকে আলোচনা হয়।  মূলত তিনটি বার্তা দেওয়া হয়েছে। প্রথমত, জেলার ৩৬১২টি বুথেই সরকারি প্রকল্পে উন্নয়ন নিয়ে নিয়মিত প্রচার চালাতে হবে। দ্বিতীয়ত, সরকারি ত্রান বিলির ক্ষেত্রে কোনও স্বজনপোষণ করা চলবে না। তৃতীয়ত, বিজেপিকে মোকাবিলা করার বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। বিজেপি কোনও অপপ্রচার করলে পাল্টা প্রচার করে মানুষকে বোঝাতে হবে। 

বৈঠকের পরে তৃণমূলের জেলা সভাপতি তথা রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ বলেন, ‘‘জেলার বুথে-বুথে দলীয় সংগঠন কী ভাবে শক্তিশালী করতে হবে, বৈঠকে তা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যা নির্দেশ দিয়েছেন, তা না মানলে দল কড়া পদক্ষেপ করবে।’’ তিনি জানান, ১ জুলাই থেকে কালনা ১ ব্লকে কার্যকরী সভাপতি হিসেবে শান্তি চাল এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মহিবুল্লা শেখকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তাঁদের কাজও ভাগ করে দেওয়া হয়েছে। মূলত পঞ্চায়েত স্তরে যে সমস্ত উন্নয়নমূলক কাজ হবে, তাঁরা সেই খতিয়ান তৈরি করবেন। রাসবিহারীবাবু বলেন, ‘‘দলের নির্দেশে বুথ-ভিত্তিক সংগঠন আরও শক্তিশালী করার লক্ষ্য নেওয়া হয়েছে।’’

তৃণমূলের বৈঠক প্রসঙ্গে বিজেপির জেলা সহ-সভাপতি ধনঞ্জয় হালদারের প্রতিক্রিয়া, ‘‘অপপ্রচার আমরা করি না। তৃণমূল কেমন উন্নয়ন করছে, মানুষ টের পাচ্ছেন।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন