• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

থমকে রয়েছে ফুটব্রিজের কাজ, ঝুঁকি নিয়েই লাইন পারাপার নওয়াদার ঢালে

noyadar dhal
এক বছর আগে ফুট ওভার ব্রিজের কাজ শুরু হয়েছে। কিন্তু তা এখনও বিশবাঁও জলে। শুধুমাত্র মাটি পর্যন্ত পিলার ঢালাই হয়ে গোটা কাজই বন্ধ হয়ে আছে। নিজস্ব চিত্র

এলাকার বহুদিনের দাবি মেনে বছর সাতেক আগে বর্ধমান-রামপুরহাট লুপ লাইনের নওয়াদার ঢাল স্টেশনে উঁচু প্লাটফর্ম তৈরি হয়। তারপর ওই রেলপথের সব স্টেশনে ফুট ওভার ব্রিজ তৈরি হলেও এই স্টেশন ব্রাত্য থেকে গেছে। ফুট ওভার ব্রিজ না থাকায় লাইন পারাপার করতে গিয়ে গত সাত বছর ধরে ছোট বড় দুর্ঘটনা লেগেই আছে। প্রাণ গিয়েছে পাঁচজন যাত্রীর। অভিযোগ, তবু হুঁশ ফেরেনি রেলের। এক বছর আগে ফুট ওভার ব্রিজের কাজ শুরু হয়েছে। কিন্তু তা এখনও বিশবাঁও জলে। শুধুমাত্র মাটি পর্যন্ত পিলার ঢালাই হয়ে গোটা কাজই বন্ধ হয়ে আছে।

আরও পড়ুন: করোনা জিতেও প্রয়াত অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ

নওয়াদার ঢাল স্টেশনের যাত্রীরা বারবার রেলের কাছে ফুট ওভার ব্রিজ তৈরির জন্য দরবার করেন। ডিআরএম থেকে জিএম, কারওর কাছে দাবি জানিয়েই কোনও ফল হয়নি। এলাকার নওয়াদা,  শিবদা, দেয়াশা,  আলিগ্রাম,  ওড়গ্রাম-সহ আর কয়েকটি গ্রামের কয়েক হাজার যাত্রী প্রতিদিন আসা যাওয়া করেন। যাত্রী সমিতির সদস্য বিশ্বজিৎ মণ্ডল বলেন, ‘‘গত তিন বছরে লাইন পারাপার করতে গিয়ে তিনজন যাত্রী মারা গিয়েছেন। তা ছাড়া বেশির ভাগ দিনই মধ্যের লাইনে মালগাড়ি দাঁড়িয়ে থাকে। তখন জীবনের ঝুঁকি নিয়েই লাইন পারাপার করতে হয়। সব থেকে সমস্যায় পড়তে হয় মহিলা, বয়স্ক ও শিশুদের। আমরা বেশ কয়েকবার রেল প্রশাসনের কাছে দাবি জানিয়েছি। কিন্তু কোন কাজ হয়নি।’’ লকডাউনের মধ্যে দীর্ঘদিন রেল পরিষেবা বন্ধ ছিল, তখন কেন কাজ এগিয়ে রাখা হল না? এই প্রশ্ন তুলে নিত্যযাত্রী গৌর রায় বলেন, ‘‘লকডাউনের সময় প্রায় প্রতিটি স্টেশনে বিভিন্ন কাজ হয়েছে। অথচ এই সময়ে ফুট ওভার ব্রিজের কাজ বন্ধ হয়ে পড়ে রইল। এখনও ট্রেন চলছে না। শুধুমাত্র হাতে গোনা কয়েকটি এক্সপ্রেস ট্রেন চালু আছে। এই সময়ে ব্রিজের কাজ হলে কোনও সমস্যা হত না।’’ এই বিষয়ে নওয়াদার ঢাল স্টেশন ম্যানেজার আনন্দ এক্কা জানান, কী কারণে কাজ বন্ধ আছে তা বলতে তিনি জানেন না।

আরও পড়ুন: লাল পতাকায় সমর্থন! রাজনীতিতে যোগ দিচ্ছেন শ্রীলেখা?

আর কয়েকদিনের মধ্যেই হয়ত আগের মতো লোকাল ট্রেন চালু হবে। আবার কী একের পর এক দুর্ঘটনার সাক্ষী থাকবে স্টেশন? আউশগ্রামের বিধায়ক অভেদানন্দ থাণ্ডার বলেন, ‘‘মানুষের প্রাণ যাচ্ছে তবু্ও রেলের কোন হেলদোল নেই। আমি নিজেও কয়েকবার রেল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করে ফুট ওভার ব্রিজের কাজ দ্রুত শেষ করার জন্য অনুরোধ করেছি।’’ এই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক নিখিল চক্রবর্তী জানিয়েছেন, ‘‘কাজ কী কারণে শেষ হয়নি, তা খোঁজ নিয়ে দেখতে হবে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন