স্কুলে এমন অনেক ছাত্রীই রয়েছে, যাদের দু’-তিনটির বেশি পোশাক নেই। তাদের দিকে তাকিয়ে বৃহস্পতিবার শিক্ষক দিবসের দিন থেকে ‘বস্ত্র ব্যাঙ্ক’ চালু করলেন বারাবনি কেলেজোরা উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকারা। এ দিন একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই উদ্যোগের পথ চলা শুরু হয় স্কুলে।

স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা নীলাঞ্জনা মুখোপাধ্যায় জানান, ২২জন স্থায়ী ও ছ’জন পার্শ্ব শিক্ষিকা মিলে ঠিক করেছেন, তাঁদের বাড়ির পুরনো, অথচ ভাল মানের পোশাক রাখা হবে এই ব্যাঙ্কে। সপ্তাহের নির্দিষ্ট এক বা দু’দিন ছাত্রীরা স্কুলেরই এক জায়গায় সাজানো সেই পোশাকগুলি পছন্দমতো নিয়ে যেতে পারবে। নিজেদের প্রয়োজন মেটানোর পাশাপাশি পরিবারের সদস্যদের জন্যও পোশাক নেওয়া যাবে। ব্যাঙ্কে জমা করা হবে পুরুষ, মহিলা, উভয়ের পোশাকই। সম্পূর্ণ নিজেদের উদ্যোগেই এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হয়েছে বলে জানান শিক্ষিকারা। পুরনো পোশাকের পাশাপাশি, নিজেদের খরচ বাঁচিয়ে বিভিন্ন উৎসব উপলক্ষে ছাত্রীদের নতুন পোশাক দেওয়ার পরিকল্পনাও রয়েছে বলে জানা গিয়েছে। ‘বস্ত্র ব্যাঙ্ক’ শুরুর দিনেই ২০ জন ছাত্রীকে নতুন পোশাক দেওয়া হয়েছে বলে জানান শিক্ষিকারা। পাশাপাশি, শিক্ষিকাদের আহ্বান, স্কুলে আর্থিক সঙ্গতিপূর্ণ পরিবার থেকে আসা ছাত্রীরাও যেন এই উদ্যোগের পাশে দাঁড়ায়।

কেন এই উদ্যোগ? প্রধান শিক্ষিকার বক্তব্য, ‘‘আমরা জানি, স্কুলের অনেক ছাত্রীরই বাড়ির আর্থিক অবস্থা ভাল নয়। দু’-তিনটির বেশি পোশাকও নেই তাদের। আমরা সবাই যে তাদের পাশে আছি, এই মানসিক জোরটা যাতে সবার মধ্যে তৈরি হয়, তাই এমন পরিকল্পনা।’’

শিক্ষিকাদের এই উদ্যোগকে অভিনন্দন জানানোর পাশাপাশি, পাশে থাকার কথাও জানিয়েছেন এ দিন স্কুলের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়া বিডিও (বারাবনি) সুরজিৎ ঘোষ, জেলা পরিষদের সদস্য অসিত সিংহেরা। এই উদ্যোগে খুশি পড়ুয়া ও অভিভাবকেরাও।