ফি বছরের মতো এ বারেও বেরিয়েছিল মহরমের তাজিয়া। এলাকার শিবমন্দিরের কাছে সেই তাজিয়া পৌঁছতেই তাতে যোগ দেওয়া মানুষদের পুষ্পস্তবক ও মালা পরিয়ে স্বাগত জানালেন ভিন্-ধর্মের মানুষ জন। চলল মিষ্টিমুখও। মহরম এবং শারোদৎসবের মরসুমে রবিবার এ ভাবেই সম্প্রীতির বার্তা দিল অন্ডালের খাসকাজোড়া।

কী ঘটেছিল এ দিন? স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কাজোড়ার সরিষাডাঙা থেকে বের হয়েছিল তাজিয়া। তাজিয়া খাসকাজোড়া কোলিয়ারি শিবমন্দির এলাকায় আসা মাত্র চলে আসেন হিন্দু, জৈন ও শিখ ধর্মাবলম্বী মানুষ। তাজিয়ায় যোগ দেওয়া মানুষদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়, লাঠি খেলা, সবই চলল সম্প্রীতির মেজাজে। এমন অভ্যর্থনা পেয়ে অভিভূত তাজিয়া কমিটির আজহার খান, আকবর আনসারিরা। তাঁরাও জানিয়ে দিলেন, এলাকার পুজোর বিসর্জনের দিন যোগ দেবেন। পালন করবেন স্বেচ্ছাসেবকের ভূমিকা।

অন্যতম উদ্যোক্তা হরভজন সিংহ, অনিল মিশ্র, বিষণদেব নুনিয়া, জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ রেনুদেবী নুনিয়ারা জানান, এই কর্মসূচির জন্য আগেভাগে এলাকায় চাঁদা সংগ্রহ করা হয়। তৈরি হয় একটি তহবিলও। তাঁদের কথায়, ‘‘কর্মসূত্রে এলাকায় নানা ধর্মের মানুষ বাস করেন। আমরা সকলেই পড়শি। তাই সব অনুষ্ঠানেই আমরা যে এক সঙ্গে চলি, সেই সম্প্রীতির বার্তা দিতেই এই আয়োজন।’’